জার্মানি থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা সরিয়ে নেবেন ট্রাম্প

নিউজ ডেস্ক:   জার্মানির বিভিন্ন ঘাঁটি থেকে সাড়ে ৯ হাজার সেনা প্রত্যাহার করে নেবে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এ সংক্রান্ত একটি পরিকল্পনায় অনুমোদন দিয়েছেন। শনিবার বিবিসির প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। সেনা প্রত্যাহারের ঘটনাকে ‘দুঃখজনক’ বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে জার্মানি।

সামরিক জোট ন্যাটোর (নর্থ আটলান্টিক ট্রিয়েটি অর্গানাইজেশন) অর্থায়ন নিয়ে ইউরোপের দেশগুলোর সঙ্গে ট্রাম্পের দ্বন্দ্ব তৈরি হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট মনে করেন, ইউরোপের দেশগুলোর উচিত ন্যাটোতে আরও অর্থায়ন করা। সেই সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের ওপর অতিরিক্ত নির্ভরশীলতা কমিয়ে ইউরোপের নিজস্ব প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা গড়ে তোলা উচিত।

জার্মানির বিভিন্ন ঘাঁটিতে যুক্তরাষ্ট্রের ৩৪ হাজার ৫০০ সেনা অবস্থান করছে। সে সংখ্যা ২৫ হাজারে নামিয়ে আনার পরিকল্পনা থেকেই জার্মানি থেকে সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিলো যুক্তরাষ্ট্র। ন্যাটোর সঙ্গে ওয়াশিংটনের মিত্রতার অংশ হিসেবে জার্মানিতে স্থায়ীভাবে ওই সেনাদের মোতায়েন করেছিল যুক্তরাষ্ট্র।

দ্য গার্ডিয়ানের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, জার্মানি থেকে প্রত্যাহার করে নেওয়া সাড়ে ৯ হাজার সেনার একাংশ মোতায়েন করা হবে পোল্যান্ড ও কয়েকটি মিত্র দেশে। বাকিদের দেশে ফিরিয়ে নেওয়া হবে।

অনেক বিশ্লেষক মনে করেন, জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেলের সঙ্গে বিদ্যমান মতবিরোধের জেরেই সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ট্রাম্প। তবে যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা বলেছেন, সেনা প্রত্যাহারের সঙ্গে এর কোনো সম্পর্ক নেই। যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ সামরিক কর্মকর্তা জেনারেল মার্ক মিলে দীর্ঘ দিন ধরে জার্মানি থেকে সেনা প্রত্যাহার করে নিতে কাজ করছিলেন। ন্যাটোতে অর্থায়ন কমানোর পদক্ষেপ হিসেবে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ট্রাম্প।