চিফ হুইপ সব সময় শিবচরকে নিয়ে ভাবেন

নিউজ ডেস্ক: শিবচরের ৬ বারের সফল সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী লিটনের জন্মদিনে হাজার হাজার নেতাকর্মীরা তাকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন। জেলা-উপজেলা আওয়ামী লীগের অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা ১ জুন থেকে ফেসবুকসহ বিভিন্ন প্রচার-প্রচারণার মাধ্যমে তাকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান।

জন্মদিনে তারা জানান, চিফ হুইপের জন্ম না হলে শিবচরে এতো উন্নয়ন সম্ভব হতো না। তিনি সব সময় শিবচরকে নিয়ে ভাবেন। তার সঠিক পরিচালার জন্য শিবচরে করোনার প্রভাব যেভাবে হওয়ার কথা ছিল তা হতে পারেনি। তার নির্দেশনা অনুযায়ী জেলা-উপজেলা প্রশাসন, জনপ্রতিনিধিরা, জেলা-উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, বিভিন্ন দপ্তরের সরকারী কর্মকর্তাবৃন্দ ও আইন শৃক্সখলা বাহিনী দিনরাত কঠিন পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।

দেশের প্রথম লকডাউন শিবচর হাওয়া সত্ত্বেও আজ করোনার প্রভাব নেই বলেই চলে। করোনার শুরু থেকে এ পর্যন্ত তার নির্দেশনা অনুযায়ী শিবচর উপজেলার ১৯টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় প্রত্যেকটি পরিবারের বাড়ি বাড়ি গিয়ে বিভিন্ন খাবার সহায়তা ও ঈদ উপহার সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া সম্ভব হয়েছে।

তারা আরও বলেন, সারা বাংলাদেশের মধ্যে ব্যতিক্রম হলো শিবচর উপজেলা। যেখানে স্পিকার, মন্ত্রী, সাংবাদিক, বিভিন্ন সংসদ সদস্য, এমনকি বিরোধী দলীয় সংসদ সদস্যরা এসে পর্যন্ত শিবচরে নূর-ই-আলম চৌধুরী লিটনের যাদুকারী উন্নয়ন দেখে অভিভূত হন।

সারা বাংলাদেশের মধ্যে যেকয়কটি উপজেলা আছে তার মধ্যে শিবচর উপজেলাকে মডেল উপজেলা বলে আখ্যা দেন। নূর-ই-আলম চৌধুরী লিটন যেভাবে শিবচরকে সাজিয়েছে সেইভাবে তাদের নির্বাচনী এলাকা সাজানো যায় কিনা তা দেখার জন্য তারা শিবচরে আসেন।

মাদারীপুর জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মুনির চৌধুরী সার্বক্ষণিক নূর-ই-আলম চৌধুরী লিটনের পাশে থেকে শিবচরের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজে তাকে সহযোগিতা করেছেন বলে মাদবরেরচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আ. হালিম রাঢ়ী জানান।