গ্রীন ফাইটিং মুভমেন্ট’র উদ্যাগে ন্যাশনাল ফ্লোরা ফেস্টিভ্যাল অনুষ্ঠিত

ওবায়দুর রহমান সোহান, ঢাবি প্রতিনিধি

বৈশ্বিক উষ্ণতা,জলবায়ু সংকট সহ সকল প্রকার প্রাকৃতিক এবং মানবসৃষ্ট দূর্যোগ ও সংকট মোকাবেলায় বদ্ধপরিকর পরিবেশবাদী সংগঠন গ্রীন ফাইটিং মুভমেন্ট’র তত্ত্ববধানে গত এপ্রিল মাসে অনুষ্ঠিত হয়েছে FIRST NATIONAL FLORA FESTIVAL 2020।

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস এর বলি হয়ে সবাই যখন ঘরবন্দী জীবন যাপন করছিল, ঠিক তখনই সবার মাঝে সজীবতা ছড়িয়ে দেয়ার নিমিত্তে ‘গ্রীন ফাইটিং মুভমেন্ট’ এরকম এক বর্ণীল উৎসবের উদ্যোগ গ্রহণ করে।

নিজের আঙ্গিনায় গড়ে উঠা বাগানের বর্ণনাসংবলিত ছোট্ট একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপলোড করার মাধ্যমে প্রায় শতাধিক ডেলিগেটের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণে ঝমকালো এই আয়োজনের সাক্ষী হয়েছে পুরো দেশের ইন্টারনেট ব্যবহারকারীরা।

২০১৯ সালের নভেম্বর মাসে “দেশকে সবুজে ছেয়ে দেওয়া। ক্লাইমেট ক্রাইসিস মোকাবিলায় দেশের সকল মানুষের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার মাধ্যমে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য একটা বাসযোগ্য দেশ উপহার দেওয়া” -এই ভিশন নিয়ে যাত্রা শুরু করে ‘গ্রীন ফাইটিং মুভমেন্ট’।

একঝাঁক তরুণ উদ্যমী মেধাবীদের সমন্বয়ে ক্রমাগত সাফল্যের দিকে এগুচ্ছে এই সংগঠনটি। বলা বাহুল্য, সর্বপ্রথম এক তরুণ স্বপ্নদর্শী মেডিকেল শিক্ষার্থী নাবিল আহমদ এমন একটি সংগঠন গড়ার উদ্যোগ নেন। “Green Birthday, Green Reception, Green Farewell” এমন সব ইভেন্ট দিয়ে প্রাথমিক যাত্রা শুরু হলেও “FIRST NATIONAL FLORA FESTIVAL 2020” এর মতো বিশাল আয়োজন “গ্রীন ফাইটিং মুভমেন্ট’র জন্য এবারই প্রথম।

১লা জুন ২০২০ সোমবার সন্ধ্যায় সেরা দশ বিজয়ীদের তালিকা প্রকাশ করার মাধ্যমে চলমান এই ইভেন্টের আনুষ্ঠানিক সমাপ্তি ঘোষণা করে গ্রীন ফাইটিং মুভমেন্ট। ফলাফল ঘোষণার অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মালিহা তাবাসসুম স্মিতা-মেডিকেল শিক্ষার্থী, কথা সাহিত্যিক ও মিডিয়া ব্যক্তিত্ব আসিফ মেহেদি, জনপ্রিয় বিজ্ঞান লেখক ও প্রকৌশলী এবং অধ্যাপক ডঃ আহমদ কামরুজ্জমান মজুমদার চেয়ারম্যান, পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগ, স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় ও জয়েন্ট সেক্রেটারি, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (BAPA)।

সংগঠনটির সম্প্রসারণ, কর্মপদ্ধতি বাস্তবায়ন এবং কাজের অগ্রগতির জন্য প্রতিটি ক্যাম্পাসে Campus Ambassador নিয়োগ দেয়ার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। উল্লেখ্য, বিশ্ববিদ্যালয় এবং মেডিকেল কলেজসহ প্রায় ৪০টিরও অধিক শিক্ষাঙ্গনে সংগঠনটির কার্যক্রম চলমান আছে। ইতোমধ্যে অতি অল্প সময়ে সংগঠনটি সর্বসাধারণের কাছে ব্যাপক জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।