ক্রিকেটাররা মাঠে অনুশীলনের অনুমতি চাইছে

নিউজ ডেস্ক:     বাংলাদেশের করোনা সংকট এখনও নিয়ন্ত্রণে আসেনি। শনাক্তের সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। ক্রিকেটারদের সুরক্ষার কথা চিন্তা করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) তাই স্টেডিয়ামে ক্রিকেটারদের ব্যক্তিগত অনুশীলনেও অনুমতি দিচ্ছে না।

বোর্ডের পক্ষ থেকে জানিয়েছে, অনুমতি দেওয়া হবে। তবে পরিস্থিতি আরও পর্যবেক্ষণ করতে হবে। এছাড়া অনুশীলনের জন্য ব্যবহার্য জিনিসপত্র জীবানুমুক্ত করার কাজও চলছে। জাতীয় দলের সিনিয়র ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিমের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা হয়েছে বলে বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজামউদ্দিন চৌধুরী ক্রীড়াবিষয়ক সংবাদ মাধ্যম ক্রিকবাজকে জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘মুশফিক যোগাযোগ করেছিল। সে শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে ব্যক্তিগত অনুশীলন শুরু করতে চাই। কিন্তু আমরা তাকে বলেছি, এখনই সেটা ঠিক হবে না। অনুশীলনে ফেরা দরকার, তবে ক্রিকেটারদের সুরক্ষা তার চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। আরও কিছু ক্রিকেটার জানতে চেয়েছে। তাদেরও একই কথা বলেছি। এছাড়া অনুশীলনের দরকারি সামগ্রী জীবানুমুক্ত করার কাজ চলছে।’

নিজামউদ্দিন জানান, অনেক দেশ অনুশীলন শুরু করেছে। তারাও করবেন। কিন্তু ক্রিকেটারদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি নিয়ে নয়। এছাড়া যেসব দেশ ক্রিকেটারদের মাঠে ফিরিয়েছে তাদের প্রক্রিয়াও কিছুদিন দেখবে বিসিবি। বোর্ডের প্রধান চিকিৎসক দেবাশীষ চৌধুরী জানান, বিসিবিও অনুশীলন ফেরানোর প্রক্রিয়া ঠিক করছে। যা কার্যকর করতে বেশি দেরি লাগবে না।

তিনি জানান, ইংল্যান্ড, শ্রীলংকা আইসিসির নির্দেশনা অনুযায়ী অনুশীলনে ফিরলেও নিজস্ব প্রক্রিয়া অনুসরণ করছে। বিসিবিও মডেল তৈরি করেছে। কেউ কেউ স্বতন্ত্র অনুশীলন করবেন। কিছু ক্রিকেটার দলীয় অনুশীলন করবেন। সেক্ষেত্রে একজন হয়তো এক ঘণ্টা ট্রেনিং করার পরে অন্যজন আসবেন। বোলারদের নিয়ে বিশেষত পেসারদের নিয়ে থাকবে আলাদা পরিকল্পনা।

শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে অনুশীলনে ফেরা নিয়ে দেবাশীষের মতামত হলো, সরকার দেশের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে লাল, হলুদ ও সবুজ ভাগে ভাগ করার পরিকল্পনা নিয়েছেন। লাল অংশে কড়া নিরাপত্তা থাকবে। কেউ ঢুকতে-বের হতে পারবেন না। লাল এবং হলুদ এলাকা এভাবে সবুজে পরিণত হবে। শেরে বাংলা তাই কোন রঙয়ের মধ্যে পড়ে সেটাও দেখার অপেক্ষায় আছেন তারা।