ময়মনসিংহের ৪র্থ বিভাগীয় কমিশনার কামরুল হাসান প্রথম কর্মদিবস

মো. নজরুল ইসলাম, ময়মনসিংহ : ময়মনসিংহ বিভাগের চতুর্থ বিভাগীয় কমিশনার অতিরিক্ত সচিব কৃষিবিদ মোঃ কামরুল হাসান এনডিসি ২ জুন প্রথম দিনের অফিসে ব্যস্ত দিন অতিবাহিত করেছেন। বিসিএস প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তা মোঃ কামরুল হাসান পেশাগত জীবনে সৎ, দক্ষ ও মেধাবী কর্মকর্তা হিসেবে পরিচিত। ময়মননিংহ জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ১ জুন দুপুরে ময়মনসিংহ বিভাগের নব যোগদানকৃত বিভাগীয় কমিশনারের বরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃত প্রতিষ্ঠিত ময়মনসিংহকে একটি আধুনিক উন্নত সমৃদ্ধ বিভাগ গড়ে তোলার জন্য সকলের আন্তরিক সহযোগীতা কামনা করেছেন নতুন বিভাগীয় কমিশনার মোঃ কামরুল হাসান এনডিসি। সিলেট বিভাগ প্রতিষ্ঠাকালীন সময়ে বিভাগীয় কমিশনারের পিএস হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে একটি বিভাগ প্রতিষ্ঠা করতে কী মেধা ও শ্রম দিতে হয়, সে অভিজ্ঞতাকে তিনি কাজে লাগাতে চান । প্রথম দিনের অফিসে কমিশনারকে সহযোগীতা করেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) নিরঞ্জন দেবনাথ ও অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (রাজস্ব) এ.এইচ এম লোকমান।

ইতিপূর্বে মৌলভীবাজার জেলার জেলা প্রশাসক ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী সদস্য (অতিরিক্ত সচিব) হিসেবে তাঁর উপর অর্পিত রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব সফলভাবে পালন করেছেন। তিনি ময়মনসিংহ বিভাগেরই কৃতিসন্তান। মহামান্য রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মাঠ প্রশাসন-২ শাখার উপ-সচিব মুহম্মদ আব্দুল লতিফ স্বাক্ষরিত ১৪ মে’২০২০ এক প্রজ্ঞাপণে এই নিয়োগ দেয়া হয়।

মোঃ কামরুল হাসান এনডিসি ময়মনসিংহ বিভাগের অন্তর্গত জামালপুর জেলার মাদারগঞ্জ উপজেলার ফাজিলপুর গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবা মোঃ রকিবুল ইসলাম (প্রয়াত) মেলান্দহ উপজেলার মাহমুদপুর বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধানশিক্ষক হিসেবে সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করেন। তাঁর মাতা মোছাঃ মনোয়ারা বেগম ২০১৯ সালে বাংলাদেশ সরকারের মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রনালয়ের অধীনস্থ মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের উদ্যোগে পরিচালিত ‘জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ’ শীর্ষক কার্যক্রমের আওতায় ‘সফল জননী হিসেবে সাফল্য অর্জনকারী নারী’ ক্যাটাগরীতে মাদারগঞ্জ উপজেলা পর্যায়ে ‘শ্রেষ্ঠ জয়িতা’ সম্মাননায় ভূষিত হন।

মোঃ কামরুল হাসান ঝাড়কাটা বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে কৃতিত্বের সাথে এসএসসি, মাদারগঞ্জ এ.এইচ.জেড কলেজ (বর্তমানে সরকারি কলেজ) হতে এইচএসসি পাস করে ১৯৮৩-৮৪ সেশনে ভর্তি হন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্বিবিদ্যালয়ে। কৃষি অনুষদ থেকে অনার্স পাস করেন এবং জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানে মাস্টার্স ডিগ্রী লাভ করেন। এছাড়াও তিনি সিকিউরিটি এন্ড ডেভেলপমেন্ট স্টাডিস বিষয়ে মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জন ছাড়াও চাকরিজীবনে ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজ হতে এনডিসি কোর্স সম্পন্ন করেন। এছাড়াও আমেরিকাসহ বিভিন্ন দেশ থেকে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ কোর্স সম্পন্ন করেন তিনি।

মোঃ কামরুল হাসান ১১তম বিসিএস প্রশাসন ক্যাডার পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে ১৯৯৩ সালে চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার অফিসে সহকারী কমিশনার হিসেবে যোগদান করেন । তার প্রথম পোস্টিং হয় সিলেট কালেক্টরেটে। এরপর কিশোরগঞ্জ জেলার পাকুন্দিয়া, ভোলা জেলার লালমোহন ও মানিকগঞ্জ জেলার হরিরামপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার, মাগুড়া জেলায় এডিসি ও ধর্মপ্রতিমন্ত্রীর একান্ত সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। সুনামের সাথে মৌলভীবাজার জেলার জেলা প্রশাসক হিসেবে দয়িত্ব পালন করেন। পরে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়, নির্বাচন কমিশন সচিবালয় এবং সর্বশেষ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ এর নির্বাহী সদস্য (অতিরিক্ত সচিব) হিসেবে তাঁর উপর অর্পিত রাষ্ট্রীয় দায়িত্ব সফলভাবে পালন করেছেন।

ব্যক্তিগত জীবনে তার সহধর্মিনী নাহিদ সুলতানা মাস্টার্স ডিগ্রী অর্জনের পর এখন গৃহিনী। তিনি ২পূত্র সন্তানের জনক।

ময়মনসিংহ বিভাগের চতুর্থ বিভাগীয় কমিশনার অতিরিক্ত সচিব কৃষিবিদ মোঃ কামরুল হাসান এনডিসি যোগদান করায় তাকে আন্তরিক অভিনন্দন ও শুছেচ্ছা জানিয়েছেন জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক সামাজিক ও সাংস্কৃতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। সেইসাথে নয়া কমিশনারকে আন্তরিকভাবে সহযোগীতারও আশ্বাস দিয়েছেন বিবৃতিদাতাগণ।
অভিননন্দন বিবৃতিতাদাগণ হলেন- ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ইকরামুল হক টিটু, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান, জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট জহিরুল হক খোকা ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এহতেশামূল আলম, জেলা নাগরিক আন্দোলনের সভাপতি অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান খান ও সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার নূরুল আমিন কালাম, ময়মনসিংহ চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি আমিনুল হক শামীম সিআইপি, জেলা বিএমএ সভাপতি ডাঃ মতিউর রহমান ভূইয়া ও সাধারণ সম্পাদক ডাঃ এইচ. এ গোলান্দাজ তারা, গণকণল্যাণ পরিষদ (জিকেপি) নির্বাহী পরিচালক, শম্ভুগঞ্জ জিকেপি অনার্স কলেজের প্রতিষ্ঠাতা ও গভর্নিং বডির সভাপতি বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ লায়ন ড. মোঃ সিরাজুল ইসলাম, ময়মনসিংহ বিভাগীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এফ.এম. এ সালাম ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ নজরুল ইসলাম, জেলা টিইউসি’র সভাপতি মাহবুব বিন সাইফ প্রমূখ।