আইসিসি ও বিসিসিআইয়ের মধ্যে বিভেদ তৈরি হচ্ছে!

নিউজ ডেস্ক:    করোনাকালে দীর্ঘদিন মাঠে ক্রিকেট নেই। শুধু তাই নয়, প্রাণঘাতি এই ভাইরাসের কারণে বন্ধ হয়ে গেছে অনেক টুর্নামেন্ট। শঙ্কা দেখা দিয়েছে অস্ট্রেলিয়ায় অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট আয়োজন নিয়েও। তবে খুব শীঘ্রই মাঠে ক্রিকেট ফেরাতে তড়িগড়ি শুরু করেছে বেশির ভাগ ক্রিকেট খেলুড়ে দেশগুলো। করোনার জন্য বিভিন্ন নিয়মেও আনা হয়েছে পরিবর্তন। এমন পরিস্থিতিতেই বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ও ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের মধ্যে ঝামেলা তৈরি হয়েছে।

মূলত ঝামেলাটি ২০২১ সালে আইসিসি টি-টোয়েন্টি এবং ২০২৩ সালে ওয়ানডে বিশ্বকাপ নিয়ে। ক্রিকেটের এই দুটি আসরই ভারতের মাটিতে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। কর ছাড় প্রসঙ্গে আইসিসি ভারতীয় বোর্ডের কাছে নিশ্চয়তা চায়। টিকিট বিক্রি এবং টুর্নামেন্ট সংক্রান্ত সব বিষয়ে শুল্ক মওকুফ হলে তবেই কোনো দেশে বিশ্বকাপ আয়োজন করা হবে, এই মর্মে ২০১৫ সালে সদস্য দেশগুলোর সঙ্গে চুক্তি সই করেছে আইসিসি। তবে আইসিসির এক প্রভাবশালী সদস্য ইঙ্গিত দিয়েছেন, বিসিসিআই ও আইসিসি, দুই পক্ষই বন্ধুত্বপূর্ণ একটা সমাধানের সূত্র খুঁজছে।

দুটি আন্তর্জাতিক ইভেন্টের কর ছাড়ের বিষয়ে নিশ্চয়তা দেওয়ার জন্য বিসিসিআইকে ২০১৯ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত সময়সীমা দিয়েছিল আইসিসি। হঠাৎ করে লকডাউনের মধ্যে আইসিসির পক্ষে নতুন করে তৎপরতা শুরু হয়েছে বিসিসিআইয়ের কাছ থেকে প্রতিশ্রুতি আদায়ের। এই বিষয়ে আইসিসি একটা চিঠি পাঠিয়েছে বিসিসিআইকে। তা মোটেও পছন্দ হয়নি ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের।

বিসিসিআই নাকি এই বিষয়টির মধ্যে রাজনীতির গন্ধ পাচ্ছে। নতুন আইসিসি চেয়ারম্যান নির্বাচনের প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে, এই তৎপরতা বলেই তিনি ইঙ্গিত করেন। এ ব্যাপারে বিসিসিআইয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘কর ছাড়ের প্রসঙ্গ বিসিসিআই নির্ধারণ করতে পারে না। ভারত সরকার ঠিক করবে কোন বিষয়ে কর ছাড় দেওয়া সম্ভব। এর আগে ফর্মুলা ওয়ানের সময় ভারত সরকার কোনো কর ছাড় দেয়নি। লকডাউন না ওঠা পর্যন্ত এই বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্তে পৌঁছানো যাবে না।’