কৃষিপণ্য বাজারজাতকরণে সচেষ্ট হতে হবে : স্পিকার

নিউজ ডেস্ক:   জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, কৃষিজাত পণ্যসমূহ নষ্ট হওয়ার আগেই সঠিক সময়ে সংরক্ষণ, বিপণন ও বাজারজাতকরণে সচেষ্ট হতে হবে।

তিনি বলেন, বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে কৃষিক্ষেত্রে সৃষ্ট সংকট থেকে উত্তরণের জন্য সকলকে একযোগে কাজ করতে হবে।
উপজেলা কৃষি অফিস, পীরগঞ্জ, রংপুর-এর উদ্যোগে আজ ‘কৃষিপণ্যের বাজারজাতকরণ বিষয়ক কৃষক মতবিনিময় সভা’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে স্পিকার এসব কথা বলেন।

এসময় ভিডিও কনফারেন্সিং এর মাধ্যমে তিনি পীরগঞ্জ উপজেলার ১৬জন কৃষকের সাথে শাক-সবজির বাজার ব্যবস্থাপনা, বর্তমানে কৃষকদের শাক সবজির বিক্রিত মূল্য, ভােক্তাদের ক্রয়মূল্য, উৎপাদন, উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা, উৎপাদনে সমস্যা ও সমাধান সম্পর্কে মতবিনিময় করেন।

এসময় স্পিকার পারিবারিক পুষ্টির চাহিদা মেটানোর জন্য ৪শ’ পরিবারের মাঝে বিভিন্ন ধরণের শাক-সবজি বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন। এরপর ১৩ নম্বর রামনাথপুর ইউনিয়নের বসতবাড়িতে সবজি চাষী সাহিদা বেগম, ১২ নম্বর মিঠিপুর ইউনিয়নের দুগ্ধখামারী মো. কবির হোসেন ও আলতাফ, ৮ নম্বর রায়পুর ইউনিয়নের মিশ্র সবজি চাষী মথুর চন্দ্র বর্মণসহ আরো অনেকেই তার সাথে মতবিনিময় করেন।

এমন একটি উদ্যোগ গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে স্পিকার বলেন, করোনা সংকটের মধ্যে কৃষিক্ষেত্রের বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছি। কৃষকের পাশাপাশি দুগ্ধ-খামারিরাও যেন ক্ষতিগ্রস্ত না হন সংশ্লিষ্ট সকলকে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

দুধ যেন নষ্ট না হয় এবং দুগ্ধ-খামারিরা যেন ন্যায্য মূল্যে দুধ বিক্রি করতে পারেন সেজন্য স্পিকার সংশ্লিষ্ট সকলকে সম্মিলিতভাবে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

স্পিকার বলেন, বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার কৃষিবান্ধব সরকার। কৃষি ও কৃষকের উন্নয়নের জন্য এ সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। শুধু করোনা পরিস্থিতিতেই নয়, বরং বছরব্যাপী সারাদেশে কৃষির আরো প্রসারে কৃষিখাতে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ অব্যাহত থাকবে বলে তিনি দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

পীরগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. সাদেকুজ্জামান সরকারের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা টি এম এ মমিন, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা, কলা-মরিচ-মাল্টা-মিশ্র সবজি চাষী ও দুগ্ধ খামারীরা উপস্থিত ছিলেন।