৪২টি পরীক্ষাগারে প্রায় ১০ হাজার নমুনা পরীক্ষা

নিউজ ডেস্ক:    গত ২৪ ঘন্টায় দেশের ৪২টি পরীক্ষাগারে সর্বাধিক ৯ হাজার ৭৮৮টি নমুনা পরীক্ষায় ১ হাজার ৬০২ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। বর্তমানে করোনা রোগীর সংখ্যা ২৩ হাজার ৮৭০জন । সুস্থ হয়েছেন ৪ হাজার ৫৮৫ জন। মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১ লাখ ৮৭ হাজার ১৯৬টি। শনাক্তের হিসাবে দেশে সুস্থতার হার ১৯ দশমিক ২১ শতাংশ এবং মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৬ শতাংশ ।

স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত অনলাইন হেলথ বুলেটিনে অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এসব তথ্য জানান।

তিনি জানান, মৃতদের মধ্যে ১৭ জন পুরুষ, ৪ জন নারী। মৃতদের বয়স বিশ্লেষণে দেখা যায়, ৬১ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে ৫, ৪১ থেকে ৫০ বছরের মধ্যে ৬, ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে ৮ এবং ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে ২ জন রয়েছেন ।

অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আইসোলেশনে রাখা হয়েছে ২৩১ জনকে। বর্তমানে আইসোলেশনে আছেন ৩ হাজার ৩৮২ জন। ছাড় পেয়েছেন ১ হাজার ৭০০ জন। সারাদেশে আইসোলেশন শয্যা রয়েছে ৯ হাজার ১৩৪টি। ঢাকার ভেতরে রয়েছে ৩ হাজার ১০০টি। ঢাকা সিটির বাইরে শয্যা রয়েছে ৬ হাজার ২৪টি। আইসিইউ সংখ্যা রয়েছে ৩৩৯টি, ডায়ালাসিস ইউনিট আছে ১০২টি।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় প্রাতিষ্ঠানিক ও হোম কোয়ারেন্টিন মিলে কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে ৩ হাজার ৪১২ জনকে। এখন পর্যন্ত ২ লাখ ৪৩ হাজার ৯০৭ জনকে কোয়ারেন্টিন করা হয়েছে। কোয়ারেন্টিন থেকে গত ২৪ ঘণ্টায় ছাড় পেয়েছেন ২ হাজার ৭৪১ জন, এখন পর্যন্ত মোট ছাড় পেয়েছেন ১ লাখ ৯৩ হাজার ৮৭২ জন। বর্তমানে মোট কোয়ারেন্টিনে আছেন ৫০ হাজার ৮৮ জন। সারাদেশে ৬৪ জেলায় ৬২৬টি প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের জন্য প্রস্তুত রয়েছে। তৎক্ষণিকভাবে এসব প্রতিষ্ঠানে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের সেবা দেয়া যাবে ৩১ হাজার ৮৪০ জনকে।

অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, কেন্দ্রীয় ঔষধাগার থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী গত ২৪ ঘন্টায় ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রী (পিপিই) সংগ্রহ হয়েছে ৭৬ হাজার ৭০৮টি। বিতরণ হয়েছে ২০ হাজার ৫০০টি। এ পর্যন্ত সংগ্রহ ২৩ লাখ ২৮ হাজার ১২টি। বিতরণ হয়েছে ১৯ লাখ ৩৬ হাজার ২৭২টি। বর্তমানে ৩ লাখ ৯১ হাজার ৭৪০টি পিপিই মজুদ রয়েছে।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘন্টায় হটলাইন নম্বরে ২ লাখ ১৬ হাজার ২৮০টি এবং এ পর্যন্ত প্রায় ৬০ লাখ ২৮ হাজার ৭৫৩টি ফোন কল রিসিভ করে স্বাস্থ্য সেবা ও পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

তিনি জানান, করোনাভাইরাস চিকিৎসা বিষয়ে এ পর্যন্ত ১৬ হাজার ১ জন চিকিৎসক অনলাইনে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেছেন। ২৪ ঘন্টায় আরও ১২ জন চিকিৎসক প্রশিক্ষণ নিয়েছেন।

এদের মধ্যে ৪ হাজার ১৭৩ জন স্বাস্থ্য বাতায়ন ও আইইডিসিয়ার’র হটলাইনগুলোতে স্বেচ্ছাভিত্তিতে সপ্তাহে ৭ দিন ২৪ ঘন্টা জনগণকে চিকিৎসাসেবা ও পরামর্শ দিচ্ছেন।

ডা.নাসিমা সুলতানা জানান, দেশের বিমানবন্দর, স্থল, নৌ ও সমুদ্রবন্দর দিয়ে গত ২৪ ঘন্টায় ১ হাজার ১২৬ জনসহ সর্বমোট বাংলাদেশে আগত ৬ লাখ ৯০ হাজার ১০২ জনকে স্কিনিং করা হয়েছে।

তিনি বলেন, করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে সবাইকে ঘরে থাকা, রমজানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা, বেশি বেশি পানি ও তরল জাতীয় খাবার, ভিটামিন সি ও ডি সমৃদ্ধ খাবার খাওয়া, ডিম, মাছ, মাংস, টাটকা ফলমূল ও সবজি খাওয়াসহ শরীরকে ফিট রাখতে নিয়মিত হালকা ব্যায়াম এবং স্বাস্থ্য অধিদফতর ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরামর্শ-নির্দেশনা মেনে চলার অনুরোধ জানানো হয়। ধূমপান থেকে বিরত থাকতে হবে। কারণ তা অতিরিক্ত ঝুঁকি তৈরি করে।