মঙ্গল অথবা বুধবার বাংলাদেশে আম্ফান এর প্রভাব পড়তে পারে

নিউজ ডেস্ক:    আগামী মঙ্গলবার অথবা বুধবার বাংলাদেশে ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফান’ এর প্রভাব পড়তে পারে বলে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে।

আবহাওয়াবিদ মো. আফতাব উদ্দিন বাসসকে জানান, ‘ঘূর্ণিঝড়টি এখনো অনেক দূরে রয়েছে। তাই এটি বাংলাদেশে আঘাত হানবে কিনা এখনো তা স্পষ্ট করে বলা যাচ্ছে না। তবে আগামী মঙ্গলবার অথবা বুধবার বাংলাদেশে ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফান’ এর প্রভাব পড়তে পারে।’

আবহাওয়া অফিস জানায়, দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন দক্ষিণপশ্চিম বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থানরত ঘূর্ণিঝড় ‘আম্ফান’ সামান্য উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে আজ সকাল ৬টা পর্যন্ত একই এলাকায় অবস্থান করছে। আবহাওয়া অফিস জানায়, ময়মনসিংহ, গোপালগঞ্জ, রাঙামাটি, রাজশাহী, পাবনা ও পটুয়াখালী অঞ্চলসহ খুলনা বিভাগের উপর দিয়ে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে।

আজ সকাল ৬টা থেকে আগামী ২৪ ঘন্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে, রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং ঢাকা ও রাজশাহী বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা থেকে ঝড়ো হাওয়ার সাথে বিজলী চমকানোসহ হালকা থেকে মাঝারী ধরনের বৃষ্টি ও বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। এ ছাড়া দেশের অন্যত্র অস্থায়ীভাবে মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানতঃ শুষ্ক থাকতে পারে।

সারাদেশে দিন ও রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। আজ সকাল ৬টায় ঢাকায় বাতাসের আপেক্ষিক আর্দ্রতা ছিল ৮২ শতাংশ। আজ ঢাকায় সূর্যাস্ত সন্ধ্যা ৬ টা ৩৫ মিনিটে ও আগামীকাল ঢাকায় সূর্যোদয় ভোর ৫ টা ১৫ মিনিটে।

শনিবার দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল যশোরে ৩৭ দশমিক ৮ ডিগ্রী সেলসিয়াস। আজ দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা বগুড়ায় ২১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় শনিবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং আজকের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৬ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

গত ২৪ ঘন্টায় দেশে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে সিলেটে ৬৮ মিলিমিটার। এছাড়া ময়মনসিংহে ৬৪ মিলিমিটার, নেত্রকোনায় ৫৩ মিলিমিটার, দিনাজপুরে ৪১ মিলিমিটার, বগুড়ায় ৪০ মিলিমিটার এবং ডিমলা ও রাজারহাটে ৩২ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

আগামী ৭২ ঘন্টা বা ৩ দিনের শেষদিকে দেশে বৃষ্টিপাতের প্রবণতা বৃদ্ধি পেতে পারে বলে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে।