পুরুষের শুক্রাণুতে করোনাভাইরাস!

পুরুষের শুক্রাণুতে নতুন করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) সন্ধান পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। এর ফলে যৌন সম্পর্কের মাধ্যমে ভাইরাসটির ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা কতটুকু তা নিয়ে উদ্বেগ তৈরি হয়েছে। চীনের একদল গবেষক বৃহস্পতিবার নতুন এ গবেষণাটির কথা জানিয়েছেন।
সিএনএন অনলাইনের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শাংকিউ পৌর হাসপাতালে করোনার চিকিৎসা নেওয়া ৩৮ জন পুরুষের ওপর গবেষণাটি চালানো হয়। জানুয়ারি-ফেব্রুয়ারিতে চীনে যখন করোনাভাইরাসের সংক্রমণ সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছায় তখন ওই রোগীদের তথ্য নিয়ে গবেষণাটি শুরু করা হয়।
জেএএমএ নেটওয়ার্ক ওপেন জার্নালে গবেষণা প্রতিবেদনটি প্রকাশিত হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, ১৬ শতাংশ পুরুষের শুক্রাণুতে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পেয়েছেন তারা। তাদের মধ্যে এক-চতুর্থাংশের অবস্থা ছিল সংকটাপন্ন। আর ৯ শতাংশ রোগী সুস্থ হয়ে উঠছিলেন।
গবেষণাটি করেছেন বেইজিংয়ের পিপলস লিবারেশন আর্মি জেনারেল হাসপাতালের চিকিকৎসক ডিয়েঞ্জাং লি ও তার দল। লি বলেন, নতুন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত পুরুষের শুক্রাণুতে ভাইরাসটির সন্ধান পাওয়া গেছে। তবে যারা সুস্থ হয়ে উঠেছেন তাদের শুক্রাণুতেও ভাইরাসটি পাওয়া যাবে কিনা তা নিশ্চিত নন তারা।
বিজ্ঞানীরা বলছেন, শুক্রাণুতে ভাইরাসের সন্ধান পাওয়ার ঘটনা নতুন নয়। ইবোলা ও জিকা ভাইরাসও শুক্রাণুতে পাওয়া গেছে। অনেক সময় ইবোলা বা জিকা থেকে সুস্থ হয়ে ওঠার কয়েক মাস পরও কোনো কোনো ব্যক্তির শুক্রাণুতে ভাইরাস শনাক্ত করা হয়েছে।
সুস্থ হয়ে ওঠা ব্যক্তির শরীরেও নতুন করোনাভাইরাস থেকে যায় কিনা সে বিষয়ে এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তবে গবেষণা প্রতিবেদনে লেখা হয়েছে, ‘ভবিষ্যতে কোনো গবেষণায় যদি দেখা যায় যে, যৌন সম্পর্কের মাধ্যমেও করোনাভাইরাস ছড়ায় তাহলে সে সংক্রমণ রোধ করা কিছুটা জটিল হয়ে পড়বে’।

চিফ রিপোর্টার, সাইফ শোভন, ঢাকানিউজ২৪.কম