দুধ ঠাণ্ডা নাকি গরম খাবেন?

তিদিন এক গ্লাস দুধ খেলে সুস্থ থাকে শরীর। দারুণ পুষ্টিগুণে ভরা এই পানীয়তে আছে প্রোটিন, ম্যাগনেশিয়াম, ক্যালসিয়াম, জিংক, ভিটামিন ডি ও পটাশিয়াম। তবে দুধ পানে দুই রকম ধারণা প্রচলিত আছে। কেউ মনে করেন গরম দুধ শরীরের জন্য বেশি উপকারী। আর কারোর মতে ঠাণ্ডা দুধই বেশি ভালো। জেনে নিন এই বিষয়ে।

গরম দুধের যত উপকার
রাতে ঘুমানোর আগে এক গ্লাস গরম দুধ পান করলে ঘুম ভালো হয়। দুধে অ্যামাইনো অ্যাসিড থাকে যা ঘুম ভালো হতে সাহায্য করে। দুধ গরম করা হলে অ্যামাইনো অ্যাসিড সক্রিয় হয়ে উঠে।
আবহাওয়া পরিবর্তনে বা এমনিতে সাধারণ ঠাণ্ডায় যদি আপনি আক্রান্ত হন, তাহলে দুধের সাথে মধু মিশিয়ে পান করলে ঠাণ্ডা দূর হয়।
পিরিয়ডের অসুস্থতায় প্রশান্তি মেলে গরম দুধের সাথে হলুদ মিশিয়ে পান করলে। দুধে থাকা পটাশিয়াম পিরিয়ডকালীন ব্যথা দূর করে ও হলুদ শরীর থেকে টক্সিন বের করে দেয়।

ঠাণ্ডা দুধের উপকার
আলসার বা অ্যাসিডিটিতে ভুগে থাকলে পান করুন ঠাণ্ডা দুধ। এক গ্লাস ঠাণ্ডা দুধের সাথে ১ টেবিল চামচ ইসবগুল মিশিয়ে পান করলে কমবে অ্যাসিডিটি।
ঠাণ্ডা দুধ ওজন কমাতে সহায়তা করে। দুধে থাকা ক্যালসিয়াম শরীরের বিপাক প্রক্রিয়া বাড়িয়ে দেয়, এতে ক্যালোরি খরচ হয় বেশি। এ ছাড়া এক গ্লাস দুধ পান করলে আপনি অনেকক্ষণ ধরে আর কিছু খাওয়ার আগ্রহ বোধ করবেন না। এতে করে বেশি খাওয়ার প্রবণতা কমে ওজন কমবে।
ঠাণ্ডা দুধে প্রচুর ইলেকট্রোলাইট থাকে, যা ডিহাইড্রেশন দূর করে।
ঠাণ্ডা দুধ শরীরে পানির মাত্রা ঠিক রেখে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়াবে।
তথ্য: টাইমস অব ইন্ডিয়া

চিফ রিপোর্টার, সাইফ শোভন, ঢাকানিউজ২৪.কম