চীনের বিরুদ্ধে গুরুতর তদন্ত করা হচ্ছে: ট্রাম্প

নিউজ ডেস্ক:    বিশ্বজুড়ে মহামারি আকারে ছড়ানোর আগেই চীন করোনা ভাইরাস থামিয়ে দিতে পারতো বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আর এ জন্য চীনের বিরুদ্ধে গুরুতর তদন্ত করা হচ্ছে বলেও জানান ট্রাম্প। সোমবার হোয়াইট হাউজে এক সংবাদ সম্মেলনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এমনটি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প বলেন, আমরা খুব গুরুতর তদন্ত করছি। চীনের সঙ্গে আমরা খুশি না। তাদেরকে কৈফিয়ত দিতে বাধ্য করার অনেক পথ আছে। এটা শুরু হওয়ার পরই থামিয়ে দেয়া যেতো।

এছাড়া ট্রাম্পের পরামর্শের পর যুক্তরাষ্ট্রের হেল্প লাইন গুলোতে বেড়ে গেছে জীবানুনাশক নিয়ে ফোন কল। এ নিয়ে ট্রাম্প বলেন, আমি কল্পনা করতে পারছি না কেন এ নিয়ে ফোন কল বেড়ে গেছে। গত রবিবার মিশিশান এবং ম্যারিল্যান্ড রাজ্যের সরকার এই ফোন কল বৃদ্ধির জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে দায়ী করেন।

এর আগে গত ২৩ এপ্রিল হোয়াইট হাউজে সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প করোনা চিকিৎসায় শরীরে জীবাণুনাশক প্রয়োগের পরামর্শ দেন। এছাড়া শরীরের মধ্যে আল্ট্রা-ভায়োলেট বা অতিবেগুনি রশ্মি প্রবেশ করিয়ে করোনা চিকিৎসার পরামর্শও দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ট্রাম্পের এমন পরামর্শের পর এ নিয়ে সমালোচনা করেছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে পরে ট্রাম্প জানিয়েছেন, মজা করেই তিনি এমন পরামর্শ দিয়েছেন। তবে করোনা চিকিৎসা নিয়ে ভুলভাল পরামর্শের পর কিছুদিন গণমাধ্যমকে এড়িয়ে চলেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।