মহাদুর্যোগেও হামলা-মামলা অব্যাহত: ফখরুল

নিউজ ডেস্ক:  বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, করোনাভাইরাসের মহাদুর্যোগে অসহায় মানুষকে ত্রাণ দিতে গিয়েও সরকারি দলের সন্ত্রাসীদের হামলার শিকার হতে হচ্ছে। তারা বিনা অপরাধে বিএনপি এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়েরও অব্যাহত রেখেছে। সোমবার এক বিবৃতিতে এই অভিযোগ করেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘করোনাভাইরাস মহামারীর মধ্যেও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা ত্রাণসামগ্রী লুটপাট চালাচ্ছে। সেই সঙ্গে বিএনপিসহ অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের ত্রাণ কর্মকাণ্ডকে জুলুমের বাতাবরণে নানা কায়দায় বাধা দিচ্ছে। এর মধ্য দিয়ে সরকারের অমানবিক মুখমণ্ডল আরও কুৎসিত হয়ে ফুটে উঠেছে।’

ফেনীতে দরিদ্র মানুষের মাঝে খাদ্য সহায়তা দেওয়ার সময় ছাত্রদল নেতা নিলয় হাসান রবিনের ওপর ছাত্রলীগের হামলা এবং বাড্ডা লিংক রোডে ত্রাণবঞ্চিত মানুষের বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে ৩৭নং ওয়ার্ড বিএনপি সভাপতি আবুল বাশারকে জড়ানোর ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানান বিএনপি মহাসচিব।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘বাংলাদেশসহ সারাবিশ্ব করোনাভাইরাসের মরণছোবলে পর্যুদস্ত। এই দুর্যোগময় পরিস্থিতিতে বাংলাদেশের দরিদ্র মানুষজনকে সহায়তা প্রদান করছে বিএনপিসহ এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা। এরই অংশ হিসেবে ফেনীতে গরীব মানুষের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণের সময় হামলা চালিয়ে নিলয় হাসান রবিনকে গুরুতর আহত করেছে ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীরা। এদিকে বাড্ডায় ত্রাণ নিয়ে সাধারণ মানুষের বিক্ষোভের ঘটনায় মিথ্য মামলায় ষড়যন্ত্রমূলকভাবে বিএনপির নেতাকে জড়ানো হয়েছে। এই দুর্যোগের সময়ও সরকার বিরোধীদলকে নিশ্চিহ্ন করার নীলনকশা থেকে পিছু হটেনি। বরং মহামারীকে কাজে লাগিয়ে সরকার আরও জোরে-সোরে বিরোধী দল ও ভিন্নমতকে উচ্ছেদ করার সামগ্রিক আয়োজনে ব্যস্ত রয়েছে।’