ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের জন্মদিন

নিউজ ডেস্ক:    ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথের জীবনে অন্যরকম এক জন্মদিন কাটল ২১ এপ্রিল। এ দিন ছিল তার ৯৪তম জন্মদিন। কিন্তু করোনা ভাইরাসে পর্যুদস্ত ব্রিটেনে চলছে লকডাউন। এর বাইরে নেই রানিও। তাই আনুষ্ঠানিকভাবে জন্মদিন পালন বর্জন করেছেন তিনি।

৭২ বছর বয়সি স্বামী ডিউক অব এডিনবরা প্রিন্স ফিলিপকে নিয়ে বার্কশায়ারে উইন্ডসর ক্যাসেলে লকডাউন অবস্থায় কাটাচ্ছেন রানি। নিরাপত্তার স্বার্থে তার সঙ্গে আছে সীমিত কয়েক জন স্টাফ। তাই যে দিনটিতে রাজপরিবার ছাড়াও শত শত শুভাকাঙ্ক্ষী রানিকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে হাজির হন, তাদেরও নিবৃত থাকতে হলো। দূর থেকে ডিজিটাল শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সবাই রানিকে। এদের মধ্যে আছেন প্রিন্স উইলিয়াম, হ্যারিরাও। এছাড়া সারা দেশ থেকেও রানির উদ্দেশে ভেসে এসেছে শুভেচ্ছাবাণী। অনাড়ম্বর জন্মদিনকে একটু ভিন্ন মাত্রা দিতে রাজপরিবারের পক্ষ থেকে কিছু ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে, যাতে তরুণ বয়সি রানিকেও দেখা গেছে।

রানির জন্মদিনের অনুষ্ঠান না পালনের এটি দ্বিতীয় ঘটনা। যৌবনেও তিনি একবার জন্মদিন পালন করা থেকে বিরত থেকেছিলেন। তার বিয়েতে ‘সহচরী’ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন লেডি পামেলা হিকস, যিনি গত রবিবার ৯১ বছরে পা রাখেন। হিকস বলেছেন, প্রিন্স ফিলিপ তখন নেভিতে চাকরি করতেন। রানির বয়স তখন ছিল ২১ বছর।

পামেলা বলেন, রানি ও আমি তখন একসঙ্গে থাকতাম। তাকে বললাম আমাদের দুই জনের জন্মদিন কাছাকাছি। তাহলে জন্মদিনের অনুষ্ঠানটা দুই জনে একই সঙ্গে উদ্যাপন করলে কেমন হয়? রানি রাজি হলেন। আমরা ২০ এপ্রিল জাঁকজমক অনুষ্ঠান করে উভয়ের জন্মদিন উদ্যাপন করার প্রস্তুতি নিলাম। সবই ঠিকঠাক চলছিল, কিন্তু দিনটা কাছাকাছি আসতেই জানতে পারলাম ওটা এডল্ফ হিটলারের জন্মদিনও বটে! হিটলারের জন্মদিনে আমরা ঘটা করে উত্সব করব এটা মেনে নিতে পারিনি। তাই সেবার আমরা দুই জনেই জন্মদিন পালন বাদ দিয়েছিলাম। সূত্র : বিবিসি ও ডেইলি মেইল।