অনতিবিলম্বে সর্বদলীয় জাতীয় কমিটি গঠন করুন : গণফোরাম

নিউজ ডেস্ক:   গণফোরামের মুখপাত্র ও নির্বাহী সভাপতি সিনিয়র এডভোকেট সুব্রত চৌধুরী সকল সরকারী হাসপাতাল ও বিশেষায়িত হাসপাতাল সমূহে করোনা ভাইরাস-১৯ এ আক্রান্ত সকল রোগীর পরীক্ষা ও চিকিৎসার ব্যবস্হার জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক কীট সরবরাহ, সমাজে বিত্তবান ও সম্পদশালী ব্যাক্তিদের প্রতি কর্মহীন অসহায় মানুষের পাশে সহযোগীতার হাত বাড়ানো এবং অনতিবিলম্বে সর্বদলীয় বৈঠক আহবান করে করোনা ভাইরাস-১৯ দূর্যোগ মোকাবেলায় সর্বদলীয় জাতীয় কমিটি গঠনের জোড় দাবী জানান ।

তিনি এক বিবৃততিে বলেন করোনা আতংকে মানুষ দিশেহারা । রোগীদের হাসপাতালে ভর্তি নেওয়া হচ্ছে না । অনেক বেসরকারী হাসপাতাল বন্ধ । বিশ্ব স্বাস্হ সংস্হা বেশি বেশি পরীক্ষার উপর জোর দিলেও ঢাকা ও ঢাকার বাইরে মাত্র ১৪টি ল্যাব চালু করা হয়েছে । যা জনসংখ্যার অনুপাতে খুবই অপ্রতুল । পরীক্ষা ব্যবস্হার এ দূর্বলতার কারনে মানুষের মনে উদ্বেগ ও অনশ্চিয়তা বাড়ছে । প্রয়োজন দলমত নির্বিশষে সকল মানবিক মূল্যবোধ সম্পন্ন মানুষের ঐক্য ।

তিনি বলেন সরকারের নির্দেশে সকল শিল্প প্রতিষ্ঠান বন্ধ । কিন্ত অতিৎ উসাহী কিছু ব্যাবসায়ির কারনে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া হয়েছে যা সকলের জন্য মহা বিপদ বয়ে আনবে । দ্রুত সকল কারখানা বন্ধ করুন। সরকারের পক্ষ থেকে বিভিন্ন ধরনের প্রনোদনা ঘোষনা করেছে । লক্ষ রাখতে হবে অর্থনীতি শক্তিশালীর নামে এ প্রনোদনা যেন নতুন দূর্নীতির ক্ষেত্রে পরিনত না হয় ।

তিনি আরো বলেন লকডাউনের কারনে মানুষ গৃহবন্দি । কর্মহীন অসহায় মানূষের পাশে খাদ্য সামগ্রী নিয়ে গণফোরামের নেতা-কর্মী, শুভানুধ্যায়ীরা আজ ও বিগত পাচ দিন ধরে ত্রাণ তৎ পরতা করছে । ইতিমধ্যে ঢাকা শহরের ধনিয়া, ধোলাই পাড় ও পার্শ্ববর্তী এলাকায়, ধানমন্ডি ৮নং রোড মোড়, কলাবাগান মোড় ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় , পলাশপুর-জাপানী বাজার, শনির আখড়া, যাত্রাবাড়ী , কাজলা, মাতুয়াইল মাদ্রাসা বাজার, ভাংগা প্রেস, ডি এন ডি বাধ, যাত্রাবাড়ী ও পার্শ্ববর্তী এলাকায়, আরামবাগ মোড়, মতিঝিল, মানিক নগর, গোলাপ বাগ, দক্ষিন কমলাপুর ও পার্শ্ববর্তী এলাকায় , রাজার দেউরি, কোর্ট হাউজ স্টিট, কৈলাস ঘোষ লেন, সাখারী বাজারসহ জর্জ কোর্ট এলাকায় মানুষের বাড়ী বাড়ী যেয়ে খাদ্য সামগ্রী পৌচ্ছে দিয়েছে। আগামী কাল কেরানী গন্জের বিভিন্ন এলাকায় খাদ্য সামগ্রী বি তরণ করা হবে ।  

সুব্রত চৌধুরী বলেন গণফোরামের জন্মলগ্ন থেকে রাজনৈতিক কর্মকান্ডের পাশাপাশি জাতীয় ও প্রাকৃতিক দূর্যোগে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে দিকনির্দেশনা মূলক মানবিক কার্মকান্ডে অংশগ্রহন করেছি । জাতীর এ ক্রান্তি লগ্ন আমাদের এ ত্রান ও মানবিক সাহায্যের তৎ পরতা অব্যাহত থাকবে ।

তিনি দলের সকল পর্যায়ের নেতা-কর্মী, শুভানুধ্যায়ীকে অসহায় মানুষের পাশে দাড়ানো এবং ত্রাণ তহবিলে সহায়তার আহবান জানান ।