বিশ্বে করোনার সর্বশেষ পরিস্থিতি

নিউজ ডেস্ক:    চীনে গত ডিসেম্বরে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর বিশ্বের ১৮৪টি দেশে এ পর্যন্ত ৭৫৭,৯৪০ জন লোক আক্রান্ত এবং ৩৬,৬৭৪ জন মারা গেছেন।

সরকারি সূত্রের উপর ভিত্তি করে বার্তা সংস্থা এএফপি’র তৈরি করা তথ্য-উপাত্ত থেকে এ কথা জানা গেছে।
সূত্র মতে, ইউরোপে মারা গেছে ২৬,৫৪৩জন। এর মধ্যে ইতালিতে ১১,৫৯১, স্পেনে ৭,৩৪০ এবং চীনে ৩,৩০৪ জন। ফ্রান্সের হাসপাতালগুলোতে করোনায় মারা গেছে ৩,০২৪জন।

এদিকে করোনা ঠেকাতে ইতালিতে ইস্টার পর্যন্ত লকডাউনের সময়সীমা বাড়ানো হচ্ছে। জিম্বাবুয়েতে তিন সপ্তাহের লকডাউন বাস্তবায়ন করতে রাস্তায় পুলিশ টহল দিচ্ছে। জর্জিয়ায় মঙ্গলবার থেকে দেশব্যাপী কোয়ারেন্টাইন এবং রাতের বেলা কারফিউ বলবৎ করা হয়েছে।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সামাজিক দূরত্ব রক্ষার সময়সীমা ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়িয়েছেন।
এদিকে ব্রিটিশ সিংহাসনের উত্তরাধিকারী প্রিন্স চার্লস সুস্থ হয়েছেন। করোনার সামান্য উপসর্গ দেখা দেয়ার পর তিনি কোয়ারেন্টাইনে চলে গিয়েছিলেন।

ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু’র শরীরে করোনা ধরা না পড়লেও পূর্ব সর্তকতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে তিনি কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন। কারণ, তার একজন স্টাফ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

হাঙ্গেরির প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর অরবানকে করোনা মোকাবেলায় ব্যাপক ক্ষমতা দিতে দেশটির পার্লামেন্টে সোমবার একটি বিল পাস করেছে।

কোভিড-১৯ মহামারী ঠেকাতে উন্নয়নশীল দেশগুলোকে সহায়তায় জাতিসংঘ ১.৫ ট্রিলিয়ন সহায়তার আহ্বান জানিয়েছেন।

ব্রিটিশ এয়ারলাইন্স ইজিজেট বলেছে, মহামারী করোনার কারণে তারা তাদের কোন বিমানকে আর উড়তে দেবে না।