প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সেনাসদস্য মাঠে থাকবে: সেনাপ্রধান

নিউজ ডেস্ক:    প্রধানমন্ত্রী এ করোনাভাইরাসকে যুদ্ধের সঙ্গে তুলনা করেছেন। আমরা সৈনিক, আমরা সব সময় যুদ্ধ করতে প্রস্তুত। সবাইকে সহযোগিতা করব বলে আমরা প্রস্তুতি নিয়ে আছি। কথাগুলো বলছিলেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ। আজ সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত এক সভা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলোচনাকালে তিনি এ কথাগুলো বলেন।

এ সময় তিনি বলেন, যত প্রয়োজন, তত সেনা সদস্য দেওয়া হবে। কিন্তু অহেতুক আতঙ্ক সৃষ্টির প্রয়োজন নেই।

তিনি আরো বলেন, সব ধরণের সহায়তা প্রদানের প্রস্তুতি ও সক্ষমতা সেনাবাহিনীর রয়েছে। দেশের প্রতিটি জেলায় আমাদের সৈনিকরা কাজ করছেন। প্রয়োজন হলে এই সংখ্যা আরো বাড়ানো হবে।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতারা।

সারা দেশে করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় গত ২৪ মার্চ থেকে মাঠে নেমেছে সশস্ত্র বাহিনী। জেলা প্রশাসনের সঙ্গে সমন্বয় রেখে সাধারণ মানুষের মধ্যে ‘সামাজিক দূরত্ব’, স্বাস্থ্য সচেতনতা ও চিকিৎসা সহায়তা প্রদানে কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ সেনা বাহিনী। এ ছাড়াও দুস্থদের সহায়তার জন্যও সশস্ত্র বাহিনীর পক্ষ থেকে গ্রহণ করা হয়েছ বেশ কিছু পদক্ষেপ।

উপকূলীয় অঞ্চলে সাধারণ মানুষকে সচেতন করে তোলা এবং বিভিন্ন ক্ষেত্র অসহায়দের সহায়তা করতে ভূমিকা রাখছে বাংলাদেশ নৌবাহিনী। বিমান বাহিনীও সহায়তার পাশাপাশি জরুরি স্বাস্থ্য সেবা কার্যক্রম পরিচালনায় ভূমিকা রাখছে।