শ্রমজীবী ও গরীব-দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়ান: ১৪ দল

নিউজ ডেস্ক:    দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে শ্রমজীবী, গরীব ও দুঃখী মানুষের পাশে দাঁড়াতে সমাজের বিত্তবানদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় ১৪ দলের নেতারা।

শুক্রবার কেন্দ্রীয় ১৪ দলের পক্ষ থেকে দেওয়া এক যৌথ বিবৃতিতে এ আহ্বান জানিয়ে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী সরকার বর্তমান পরিস্থিতি মোকাবেলায় যথাসাধ্য চেষ্টা করছে। কিন্তু সরকারের একার পক্ষে সব কিছু করা সম্ভব না। তাই আসুন সবাই দৈনিক খেটে খাওযা দরিদ্র মানুষদের পাশে দাঁড়াই।
নেতৃবৃন্দ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা মেনে সবাই মানবতার সেবায় ঝাঁপিয়ে পড়ুন। এখন আর রাজনীতি নয়। প্রাণঘাতি করোনা ভাইরাসের বিরুদ্ধে মহাযুুদ্ধকে মোকাবেলা করাই এখন মহারাজনীতি।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, গত ২৫ মার্চ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতির উদ্দেশে এক দিক-নির্দেশনামূলক ভাষণ দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর এই ভাষণ মহা বিপর্যয়ের সম্মুখীন জাতিকে সাহস ও আত্মবিশ্বাস যোগাবে।

১৪ দলের যৌথ বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন আওয়ামী লীগ সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এবং কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম, ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন এমপি, জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু এমপি, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, জাতীয় পার্টির (জেপি) সাধারণ সম্পাদক শেখ শহীদুল ইসলাম, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সদস্য মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম, বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী এমপি প্রমুখ।

বিবৃতিতে ১৪ দলের নেতারা বলেন, করোনা প্রতিরোধে দেশে কার্যতঃ এখন লকডাউন চলছে। করোনা থেকে বাঁচতে সব মানুষই এখন ঘরে বন্দি হয়ে আছে। যাদের আর্থিক সঙ্গতি আছে তারাই সাময়িকভাবে দুর্যোগ কাটিয়ে উঠতে পারছে এবং পারবে। কিন্তু যারা শ্রমজীবী মানুষ, যাদের দিনের আয়ের ওপর নিজ পরিবারের খাবার যোগাড় করতে হয়, তাদের সামনে এখন খুবই দুঃসময়।

আমরা মনে করি আওয়ামী লীগসহ ১৪ দলের সকল নেতা-কর্মীদের যার যার সাধ্য অনুযায়ী এই শ্রমজীবী মানুষ যেমন রিক্সাচালক, ভ্যানচালক, দিনমজুরদের পাশে দাঁড়াতে হবে।