সরকার মোদিকে পূর্ণ নিরাপত্তা দেবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক:    ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে না আসার কোনো কারণ নেই। বিশ্বের বৃহত্তম গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র এটি (ভারত)। সেখান থেকে আরও অনেক অতিথি আসবেন। সবার নিরাপত্তা বিষয়টি আন্তরিকভাবে নেয়া হবে। শিল্পখাত বিকাশ ঘটবে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন।

তিনি আরও বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ঢাকা সফরে সরকারের পক্ষ থেকে পূর্ণ নিরাপত্তা দেবে সরকার। মোদির সফর ঘিরে কোনো অপ্রীতিকর ঘটনার সম্ভাবনা দেখা দিলে সরকার সেটা নিয়ন্ত্রণের ক্ষমতা রাখে।’

বৃহস্পতিবার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এসএমই মেলায় এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের সামনে এসব কথা বলেন তিনি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘উনি (মোদি) অবশ্যই আসবেন, না আসার কোনো কারণ দেখছি না। কোনো ঝামেলা হলে আমরা অবশ্যই নিয়ন্ত্রণ করতে পারবো। সরকার অবশ্যই পারবে। আমাদের অতিথিদের অবশ্যই আমরা প্রোভাইড ফুল প্রোটেকশান (পূর্ণ নিরাপত্তা) দেব।’

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে যোগ দিতে ১৭ মার্চ ঢাকায় আসছেন নরেন্দ্র মোদি। সাম্প্রতিক সময়ে ভারতের রাজধানী দিল্লিতে সংঘটিত দাঙ্গার জের ধরে বাংলাদেশের বিভিন্ন মহল মোদির ঢাকা সফর নিয়ে আপত্তি তুলছে। ইতোমধ্যে কিছু ইসলামি দল ক্ষমতাসীনদের এ বিষয়ে হুঁশিয়ারিও দিয়ে রেখেছে।

মোদির ঢাকা সফরে তার যেটুকু প্রাপ্য সেটাই দেওয়া হবে জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘ওনাকে আমরা যথাযোগ্য মর্যাদা দেব। ওনার যেটা পাওনা সেটা আমরা দেব। নিশ্চয়ই আমরা সন্মান যা দেওয়ার দেব।’

চুক্তির বিষয়টি স্পষ্ট না করলেও কিছু সম্ভাবনার ইঙ্গিত দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। বলেন, ‘সম্ভাবনা অনেক কিছুতেই। সবার কিছু প্রত্যাশা থাকে, আলোচনার মাধ্যমে সব ঠিক হবে।’

সম্প্রতি ঢাকা সফর করে গেছেন ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষ বর্ধন শ্রিংলা। দুই দিনের সফরে এসে বেশ কিছু সম্ভাবনার ইঙ্গিত দিয়ে গেছেন বাংলাদেশকে খুব কাছ থেকে দেখা ঢাকায় নিযুক্ত সাবেক ভারতের এই হাইকমিশনার।