কলকাতা উপহাইকমিশনের কর্মকর্তারা টুঙ্গিপাড়ায়

নিউজ ডেস্ক:  বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষে কলকাতায় বাংলাদেশ উপহাইকমিশনের কর্মকর্তারা গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায়, সেখানে তাঁরা বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এই দলে রয়েছেন কলকাতায় নিযুক্ত বাংলাদেশের উপহাইকমিশনার তৌফিক হাসান, দূতাবাসপ্রধান বিএম জামাল হোসেন, কাউন্সিলর (কনস্যুলার) বশির উদ্দিন, কাউন্সিলর (ক্রীড়া ও শিক্ষা) শেখ সফিউল ইমাম, প্রথম সচিব (প্রেস) মোফাখখারুল ইকবাল, প্রথম সচিব (রাজনৈতিক-১) শামীমা ইয়াসমীন, দ্বিতীয় সচিব (কনস্যুলার) শেখ শাফিনুল হক প্রমুখ।

আগামী ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে কলকাতার বাংলাদেশ উপহাইকমিশন আয়োজন করেছে বছরব্যাপী অনুষ্ঠানমালার। জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানের উদ্বোধন হবে ১৭ মার্চ কলকাতার রবীন্দ্র সদনে। এতে ভারত ও বাংলাদেশের বিশিষ্টজনেরা অংশ নেবেন। মুজিববর্ষ শুরুর দিন সকালে কলকাতায় বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিবাহী বেকার হোস্টেলে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিকক্ষে তাঁর ভাস্কর্যে শ্রদ্ধা নিবেদন ও পুষ্পমাল্য অর্পণ করা হবে।

কলকাতা উপহাইকমিশন ছিল মুক্তিযুদ্ধের সময়ের একটি আঙিনা। তখন এখানে উপহাইকমিশনার ছিলেন এম হোসেন আলী। ১৯৭১ সালের ১৭ এপ্রিল মুজিবনগরে বাংলাদেশের প্রথম সরকারের শপথ নেওয়ার পরের দিন ১৮ এপ্রিল দুপুরে এম হোসেন আলী বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন করে মুক্তিযুদ্ধের পাশে এসে দাঁড়ান। সেদিন এই দূতাবাসের ৬৫ জন বাঙালি কর্মকর্তা ও কর্মচারীও এই পতাকাতলে সমবেত হয়েছিলেন।