বিটিআরসিকে ১ হাজার কোটি টাকা দেবে গ্রামীণফোন

নিউজ ডেস্ক:    বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনকে (বিটিআরসি) আগামী রোববার এক হাজার কোটি টাকা পরিশোধ করার কথা জানিয়েছে মোবাইল সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান গ্রামীণফোন।

গতকাল বৃহস্পতিবার গ্রামীণফোনের বিষয়ে আপিল বিভাগের শুনানির পর প্রতিষ্ঠানটি এমন সিদ্ধান্তের কথা জানাল।

আজ শুক্রবার গ্রামীণফোনের পক্ষ থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়, গ্রামীণফোন বাংলাদেশের আইনি পদ্ধতিকে সম্মান করে। তবে বিটিআরসি গ্রামীণফোনের ওপর যে চাপ প্রয়োগ করেছে, তারা সে বিষয়ে আদালতের সুরক্ষা প্রত্যাশা করছে।

পাওনা পরিশোধে গ্রামীণফোনের সিদ্ধান্তে স্বাগত জানিয়ে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তফা জব্বার গণমাধ্যমকে জানান, গ্রামীণফোনের সঙ্গে সরকারের কোনো খারাপ সম্পর্ক নেই। প্রতিষ্ঠানটির কাছ থেকে সরকার তার পাওয়া চেয়েছে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার আপিল বিভাগ বলেছিলেন, আগামী সোমবারের মধ্যে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনকে (বিটিআরসি) ১০০০ কোটি টাকা পরিশোধ করতে হবে গ্রামীণফোনের।

একই সঙ্গে সোমবারের মধ্যে গ্রামীণফোনের রিভিউ আবেদনের ওপর আদেশের জন্য দিন ধার্য করেছেন আপিল বিভাগ। প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন সাত সদস্যের আপিল বিভাগ দিনটি ধার্য করেন।

গত বছরের ২ এপ্রিল বিভিন্ন খাতে ১২ হাজার ৫৮০ কোটি টাকা দাবি করে বিটিআরসি গ্রামীণফোনকে চিঠি দিয়েছিল। পরে গ্রামীণফোন ওই চিঠির বিষয়ে নিম্ন আদালতে টাইটেল স্যুট (মামলা) করে। একই সঙ্গে ওই মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত অর্থ আদায়ের ওপর অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা চেয়ে আবেদন করা হয়। পরে ২৮ আগস্ট নিম্ন আদালত গ্রামীণফোনের অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞার আবেদন খারিজ করে দিলে ওই আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করে গ্রামীণফোন।

শুনানি শেষে গত বছরের ১৭ অক্টোবর আদালত আপিলটি শুনানির জন্য গ্রহণ করে টাকা আদায়ের ওপর দুই মাসের অন্তর্বর্তীকালীন নিষেধাজ্ঞা দেন। পরে গ্রামীণফোনের কাছে ওই টাকা দাবি আদায়ের ওপর হাইকোর্টের নিষেধাজ্ঞা স্থগিত চেয়ে বিটিআরসি আপিল বিভাগে আবেদন করে।

ওই আবেদনের ওপর শুনানি শেষে ২৪ নভেম্বর তিন মাসের মধ্যে দুই হাজার কোটি টাকা দেওয়ার আদেশ দেন আপিল বিভাগ। এ আবেদনের রিভিউ চেয়ে আবেদন করে গ্রামীণফোন।