দিল্লিতে হ্যাটট্রিক জয়ের পথে কেজরিওয়াল

নিউজ ডেস্ক:   ভারতের দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে বিশাল ব্যবধানে এগিয়ে আছে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি। বুথফেরত জরিপের পূর্বাভাস অনুযায়ী, এই নির্বাচনে জিতে তৃতীয়বারের মতো দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

দিল্লির ৭০ আসনের মধ্যে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি ৫০-৫৫টি আসনে জিতেছে বলে বুথফেরত জরিপে বলা হয়েছে। অর্থাৎ কেজরিওয়াল আরও একটি নিরঙ্কুশ জয় পেতে যাচ্ছেন বলে বুথফেরত জরিপে বলা হয়েছে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার

বুথফেরত জরিপ অনুযায়ী, বিজেপি ১৪টি আসন ও কংগ্রেস কোনো আসন পাবে না। বাকি সব আসন পাবে আম আদমি পার্টি।

শনিবার সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে চলে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত। এরপর শুরু হয় ভোটগণনা। দিল্লিতে ভোটার প্রায় দেড় কোটি।

দিল্লিতে কেজরিওয়াল ফ্যাক্টর হয়ে ওঠেন ২০১৩ সালে। দীর্ঘদিন জিইয়ে থাকা দিল্লির নাগরিক সমস্যাগুলো সবার সামনে আনতে সক্ষম হন তিনি। তার সঙ্গে ধীরে ধীরে যুক্ত হয় মধ্যবিত্ত শ্রেণির বড় একটি অংশ। তাদের সঙ্গে নিয়ে নির্বাচনে নামেন কেজরিওয়াল।

প্রথমবার দিল্লিতে নির্বাচন করে বিধানসভার ৭০ আসনের মধ্যে ২৮টিতে জয় পায় কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি। সেবার ৩১ আসন নিয়ে বিজেপি একক গরিষ্ঠতা পায়।তবে কেজরিওয়ালের সঙ্গে তারা সরকার গঠন করেনি। ব্যাপক ভরাডুবি হওয়া কংগ্রেস পায় আট আসন। কেজরিওয়াল সরকার গঠনে কংগ্রেসের সমর্থন পান। প্রথমবার মুখ্যমন্ত্রী হন কেজরিওয়াল। তবে তার সরকার মাত্র ৪৯ দিন টিকেছিল।

দ্বিতীয় দফায় নির্বাচনে এককভাবে বিধানসভায় বিশাল জয় পায় আম আদমি পার্টি। ৭০ আসনের মধ্যে ৬৭টিতেই জিতে ইতিহাস তৈরি করেন কেজরিওয়াল। কংগ্রেস একটি আসনও তখন পায়নি।

আর বাকি তিন আসন পেয়েছিল বিজেপি। তখন বোঝা যায়, দিল্লির মানুষ বড় বড় রাজনৈতিক দলের গালভরা প্রতিশ্রুতির চেয়ে উন্নয়নকর্মী কেজরিওয়ালকেই তাদের মানুষ হিসেবে বেছে নিয়েছেন। সেই থেকে বিজেপি ও কংগ্রেস দিল্লিতে খুব বেশি সুবিধা করতে পারেনি।