রোহিঙ্গাদের কারণে স্থানীয়রা মানসিক ও পারিবারিকভাবে বিপর্যস্ত

নিউজ ডেস্ক:  স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, ‘রোহিঙ্গাদের কারণে স্থানীয়রা মানসিক ও পারিবারিকভাবে বিপর্যস্ত। স্থানীয় ক্ষতিগ্রস্তদের সার্বিক সহযোগিতার জন্য আন্তর্জাতিক সংস্থাসহ দেশি-বিদেশি এনজিওদের এগিয়ে আসতে হবে।’

শুক্রবার কক্সবাজারের উখিয়াতে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন এবং রোহিঙ্গা ক্যাম্প সংলগ্ন এলাকায় জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর ও স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন বিভিন্ন প্রকল্প পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিয়কালে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘রোহিঙ্গা শরণার্থীরা যাতে স্থানীয় জনগোষ্ঠীর সঙ্গে মিশে যেতে না পারে সে ব্যাপারে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। তারা মিয়ানমারের নাগরিক। সেখান থেকে বাস্তুচ্যুত হওয়ায় মানবিক কারণে আমরা সাময়িকভাবে তাদের আশ্রয় দিয়েছি। তাদের অবশ্যই মায়ানমারে ফিরে যেতে হবে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘রোহিঙ্গাদেরকে মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাদের আশ্রয় দিয়েছেন। এখন রোহিঙ্গাদের কারণে তিগ্রস্থ হচ্ছে কক্সবাজারের পরিবেশ, পানি, জলাশয় এবং বর্জ্য ব্যবস্থাপনা। এর উন্নয়নে আরো বেশি কাজ করতে হবে।’

এসময় মন্ত্রী কুতুপালং এ রোহিঙ্গা ক্যাম্প-৪ এক্সটেনশন এলাকায় বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর কর্তৃক নির্মিত মিনিপাইপড পানি সরবরাহ ব্যবস্থার উদ্বোধন করেন। উখিয়ার ময়নার ঘোনা রোহিঙ্গা ক্যাম্প-১২ এলাকায় আইএমও পরিচালনাধীন সুপেয় পানির পাম্প কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। এছাড়াও তিনি ক্যাম্প-২০ এক্সটেনশন এলাকায় এশীয়া উন্নয়ন ব্যাংকের সহায়তায় ইর্মাজেন্সী এসিসট্যান্স প্রকল্পর মাধ্যমে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) কর্তৃক নির্মিত ফুড ডিস্ট্রিবিউশন সেন্টারসহ রাস্তা ও স্থাপনা উদ্বোধন করেন।

ক্যাম্প পরিদর্শনকালে স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব হেলালুদ্দিন আহমদ, স্থানীয় সরকার প্রকৌশলী অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী সুশংকর চন্দ্র আচার্য, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মো. সাইফুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।