ধোনির ব্যাপারে মন্তব্যহীন সৌরভ

স্পোর্টস ডেস্ক ০৭:০২, ১৯ জানুয়ারি, ২০২০

মহেন্দ্র সিং ধোনি যখন ক্যারিয়ার শুরু করেন, অধিনায়ক ছিলেন সৌরভ গাঙ্গুলি। সৌরভের পছন্দেই জাতীয় দলে এসেছিলেন ধোনি। আবার ‘প্রিন্স অব ক্যালকাটা’ খ্যাত গাঙ্গুলি যখন বাধ্য হয়ে ক্যারিয়ারের শেষ প্রান্তে পৌঁছে যান, তখন অধিনায়ক ছিলেন ধোনি।

কাকতালীয়ভাবে এখন যখন ধোনি প্রায় ক্যারিয়ারের শেষ দেখে ফেলেছেন, তখন ভারতীয় ক্রিকেটের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বোর্ড অব কনট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়ার (বিসিসিআই) সভাপতি হলেন সেই সৌরভ।

সেই ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর থেকেই দলের বাইরে আছেন ধোনি, মানে কাগজেকলমে মাস ছয়েক হলো তিনি দলের বাইরে। বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি অনেকবারই তার ভবিষ্যত্ পরিকল্পনা নিয়ে জানার চেষ্টা করেছেন। কিন্তু, ধোনি বরাবরই সবাইকে ধোয়াশায় রেখেছেন।

ফলে, অনেকটা বাধ্য হয়েই গেল বৃহস্পতিবার ভারতকে তিনটি আইসিসি ইভেন্টের শিরোপা এনে দেওয়া ধোনিকে কেন্দ্রীয় চুক্তির বাইরে রেখেছে বিসিসিআই। সেই ঘটনার পর গেল শুক্রবার ভারতের ফ্র্যাঞ্চাইজি ফুটবল টুর্নামেন্ট ইন্ডিয়ান সুপার লিগের (আইএসএল) এক অনুষ্ঠানে এসেছিলেন সৌরভ। সেখানে ধোনির ব্যাপারে তাকে গণমাধ্যমকে প্রশ্ন করা হলে একেবারেই এড়িয়ে যান, বলেন, ‘আমার এই ব্যাপারে কোনো মন্তব্য নেই।’

বোর্ড ধোনির ফেরার পথ অনেকটা বন্ধ করে ফেললেও অবশ্য একটা পথ খোলাই আছে। আর সেটা হলেন কোচ রবি শাস্ত্রী। কদিন আগে তিনি বলেই রেখেছেন যে ‘ক্যাপ্টেন কুল’-এর ভবিষ্যত্ নির্ভর করছে আসন্ন ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) পারফরম্যান্সের ওপর।

ধোনি অবশ্য ক্রিকেটের মধ্যেই আছেন, কেন্দ্রীয় চুক্তি থেকে বাদ পড়ার পর দিনও তিনি অনুশীলনে ব্যস্ত সময় কাটান। ঝাড়খণ্ডের রঞ্জি ট্রফির দলের হয়ে লম্বা সময় নেটে ব্যাটিং করেন তিনি। তার এই অধ্যবসায় দেখে মুগ্ধ হয়েছেন কোচ রাজিব কুমার। তিনি আনন্দবাজারকে বলেন, ‘সত্যি কথা বলছি, এত দিন পরে অনুশীলন শুরু করায় ভেবেছিলাম ধোনির মধ্যে জড়তা থাকবে। নেটে ব্যাট করতে সমস্যা হবে। কিন্তু সেটা হয়নি, আমি খুবই বিস্মিত। ঝাড়খণ্ডের বাকি ক্রিকেটারদের মতোই ছন্দে আছে ধোনি। সবচেয়ে বেশি অবাক করেছে ওর ব্যাটিং। নেটে কি সাবলীল। প্রত্যেকটি বল ব্যাটের মাঝে এসে লাগছে।’

চিফ রিপোর্টার, সাইফ শোভন, ঢাকানিউজ২৪.কম