সরস্বতী পূজায় ভোট নয়: বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট

সুমন দত্ত: সনাতন হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম বৃহৎ উৎসব সরস্বতী পূজার দিন ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের তারিখ ঘোষণায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট।

শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাবে সামনে এ নিয়ে এক মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করেন সংগঠনের নেতা ও সদস্যবৃন্দ। এদিন বিক্ষোভে অংশ নেয়া বক্তারা বলেন। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় অর্জিত এই বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িকতার প্রতীক। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন। পবিত্র সংবিধানের ২(ক) ধারায় পরিষ্কার বলা আছে প্রজাতন্ত্রের রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম হলেও অন্য সম্প্রদায়ের লোকজন সমান মর্যাদা ও সমান অধিকার ভোগ করবে। এসব জানা সত্ত্বেও নির্বাচন কমিশন সংবিধানের এই অনুচ্ছেদ লঙ্ঘন করে পূজার দিন ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনের তারিখ ঠিক করেছে। হিন্দু মহাজোট অনতিবিলম্বের এই তারিখ পরিবর্তনের দাবি জানায়।

তারা আরো বলেন, ভোটের দিন সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত কর্মচারীরা ভোটের দায়িত্ব পালন করলে তারা কীভাবে পূজা করবে? এছাড়া যেসব প্রতিষ্ঠানে পূজা হবে সেই সব প্রতিষ্ঠানে কীভাবে ভোটের আইন কানুন বাস্তবায়ন হবে? এসব প্রশ্নের উত্তর না দিয়েই নির্বাচন কমিশন সচিব ভোট ও পূজা এক সঙ্গে করার ঘোষণা দিচ্ছেন। যা হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকদের মনে আঘাত করা হয়েছে। বাংলাদেশে হিন্দু মহাজোট নির্বাচনের কমিশনের এসব কর্মকাণ্ডকে গভীর ষড়যন্ত্রমূলক ও চক্রান্ত বলে মনে করে।

বিক্ষোভ ও মানব-বন্ধন কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছে অ্যাডভোকেট দীনবন্ধু রায়, ডা. এমকে রায়, সুশীল মিত্র, উত্তম কুমার দাস, সুবাস চন্দ্র সাহা, তারক চন্দ্র রায়, প্রদীপ কুমার পাল, তাপস কুমার বিশ্বাস, সুজন কুমার, উদয় কুমার বসাক, মিঠু রঞ্জন দেব, শ্যামল ঘোষ প্রমুখ।