আমরণ অনশনে বিজয় একাত্তর হল সংসদের সংহতি প্রকাশ

ওবায়দুর রহমান সোহান, ঢাবি প্রতিনিধি

স্বরস্বতী পূজার জন্য ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের দাবিতে গত বৃহস্পতিবার থেকে রাজুভাস্কর্যে আমরণ অনশন পালন করছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় অর্ধশতাধিক শিক্ষার্থী। দিনে দিনে বাড়ছে অনশনকারীর সংখ্যা।

এর আগে গতকাল অনশনকারীদের সাথে সংহতি প্রকাশ করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো আখতারুজ্জামান।

অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন ধর্মের, বিভিন্ন হলের শিক্ষার্থীরা। তারই ধারাবাহিকতায় আজ(১৮ জানুয়ারি) দুপুরে আমরণ অনশনে সংহতি প্রকাশ করেছে বিজয় দিবস হল সংসদের সহ-সভাপতি (ভিপি) সজিবুর রহমান এবং সাধারণ সম্পাদক (জিএস) নাজমুল হাসান নিশান।

এর আগে গতকাল অনশনকারীদের সাথে সংহতি প্রকাশ করেছেন বিজয় একাত্তর হলের সহ-সাধারণ সম্পাদক (এজিএস) আবু ইউনুস।

নির্বাচন কমিশনের সাম্প্রদায়িক সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা জানিয়ে বিজয় একাত্তর হল সংসদের ভিপি সজিবুর রহমান বলেন, অসাম্প্রদায়িক চেতনার আঁতুড়ঘর এই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী সিহেবে ৩০ তারিখ সরস্বতী পূজার দিন যদি নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তন করা না হয় তাহলে নির্বাচন নয়, আমরা পূজা উদযাপন করবো।বিজয় একাত্তর হলের শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে আমরণ অনশন কর্মসূচিতে সংহতি প্রকাশ করছি।

বিজয় একাত্তর হল সংসদের জিএস নাজমুল হাসান নিশান বলেন, একটি ধর্মীয় উৎসবের দিনে নাগরিক অধিকার ভোট গ্রহণ বা প্রদান অনুষ্ঠান কোন ভাবেই চলতে পারে না।এটা একটা সম্পদায়ের ধর্মীয় চেতনাকে হীন করার শামিল।

তিনি আরোও বলেন, বিজয় ৭১ হল তথা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মত অসাম্প্রদায়িক চেতনার জায়গায় থেকে কোন ভাবেই নির্বাচন কমিশনের ডাকা ৩০ তারিখ স্বরস্বতী পূজার দিন ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনের ভোটগ্রহণ চলতে দেয়াকে সমর্থন দেয়া যায় না, আমি হল সংসদের সাধারণ সম্পাদক হিসাবে বিজয় ৭১ হলে সাধারণ শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে ইসির উক্ত সিদ্ধান্তের প্রতি তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করছি।সেই সাথে ইসিকে উক্ত সিদ্ধান্ত থেকে দ্রুত সরে আসতে জোর দাবী জানাচ্ছি।

উল্লেখ্য, সরস্বতী পূজার দিনে ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনের তারিখ পেছানোর দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) শিক্ষার্থীদের টানা তৃতীয় দিন ধরে আমরণ অনশন অব্যাহত রয়েছে।
এ কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে শনিবার সকাল পর্যন্ত মোট ১১ শিক্ষার্থী অসুস্থের খবর পাওয়া গেছে। সর্বশেষ আজ শনিবার বেলা ১১টার দিকে অভি দাস প্রিতম নামের এক অনশনকারী অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।