ইউক্রেনের উড়োজাহাজ ভুলে ভূপাতিত করা হয়: ইরান

নিউজ ডেস্ক:  ইরানে বিধ্বস্ত হওয়া ইউক্রেনের যাত্রীবাহী বিমানটি ‘অনিচ্ছাকৃতভাবে’ ভূপাতিত করা হয়েছে বলে স্বীকার করেছে দেশটির সামরিক বাহিনী। সামরিক বাহিনীর এক বিবৃতির বরাত দিয়ে ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন চ্যানেল এ কথা জানানো হয়েছে। খবর বিবিসির

শনিবার সকালে প্রচারিত সামরিক বাহিনীর ওই বিবৃতিতে বলা হয়, ‘মানবীয় ভুলে’র কারণে তারা ইউক্রেনের যাত্রীবাহী উড়োজাহাজটি ভূপাতিত করেছে। এ ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করা হবে বলেও বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়।

ইরানের ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতেই উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হয়েছে বলে বিভিন্ন মহল থেকে দাবি প্রত্যাখ্যান করে আসছিল ইরান। গত মঙ্গলবার স্থানীয় সময় মধ্য রাতে ইরানের রাজধানী তেহরানের কাছে বোয়িং ৭৩৭ মডেলের উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হয়। এতে  ১৭৬ জন আরোহীর সবাই নিহত হন।

মার্কিন ড্রোন হামলা কুদস ফোর্সের কমান্ডার কাসেম সোলাইমানি নিহত হওয়ার পর প্রতিশোধ হিসেবে ওই রাতেই ইরাকে দু’টি মার্কিন ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় ইরান। ওই হামলার কয়েক ঘণ্টা পরই ইরান থেকে ইউক্রেনগামী যাত্রীবাহী উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হয়।

উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হওয়ার পর কয়েকটি মার্কিন গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছিল, ইরাকে দুটি মার্কিন বিমানঘাঁটিতে হামলার পর যুক্তরাষ্ট্রের পাল্টা হামলার অপেক্ষায় থাকা ইরানের সামরিক বাহিনী ইউক্রেনের যাত্রীবাহী উড়োজাহাজকে যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধবিমান মনে করে ভূপাতিত করে থাকতে পারে।

তবে ইরানের ছোড়া ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হয়েছে- এমন অভিযোগ বরাবরই অস্বীকার করে আসছিল ইরান। কিন্তু ভুল করে ইরান ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়ে উড়োজাহাজটি ভূপাতিত করে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা গোয়েন্দারা জোরালো দাবি তোলার পর  ইরানের ওপর চাপ বাড়তে থাকে।