ক্রিকেটের ‘উত্থান-পতন’, গেইলের পরামর্শ

নিউজ ডেস্ক:   নানা ঘটন-অঘটনের মধ্যে দিয়ে ২০১৯ সাল কেটেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের। নিউজিল্যান্ড সিরিজে ক্রাইস্টচার্চে হামলার পর ভারতের বিপক্ষে সিরিজে ধবলধোলাই মাঝে ক্রিকেটারদের আন্দোলন ও সাকিবের নিষিদ্ধ হওয়া। সবকিছু মিলিয়ে ক্রিকেটের অবস্থা খুব একটা সুবিধাজনক নয়। তাই বাংলাদেশের ক্রিকেট উত্থান-পতনের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বঙ্গবন্ধু বিপিএল খেলতে আসা ক্যারিবীয় তারকা ক্রিস গেইল।

বৃহস্পতিবার বিসিবি একাডেমি মাঠে অনুশীলন ছিল চট্টগ্রাম চ্যালঞ্জার্সের। এ দলের হয়ে খেলা গেইল অনুশীলনের ফাঁকে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় বাংলাদেশের ক্রিকেট নিয়ে নানা কথা বলেন, দেন পরামর্শও্

ক্রিস গেইল বলেন, ‘বাংলাদেশের ক্রিকেট উত্থান-পতনের মধ্যে এগিয়ে যাচ্ছে এবং আমাদের ক্ষেত্রেও একই ব্যাপার ঘটছে। আমরা বেশি বেশি ম্যাচ ও সিরিজ জিতে নিজেদের ধারাবাহিকতা ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছি। বেশিরভাগ সময়ই আমরা কিছু খেলোয়াড় হারাচ্ছি এবং আমাদের আবার নতুন খেলোয়াড় তৈরি করতে হচ্ছে।’

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের হয়ে প্রথম ম্যাচে নেমেই বিস্ফোরক ব্যাটিং শুরু করেছেলন। তবে বেশিদূর যেতে পারেননি। ১০ বলে ২৩ রানের ছোট্ট ইনিংসে ছয়ের মারই ছিলো তিনটি। বাংলাদেশের ক্রিকেট উত্থান-পতনের মধ্য দিয়ে গেলেও তিনি পরামর্শ দিয়েছেন কীভাবে এটা থেকে বেরিয়ে আসা যায়। উদাহরণ দেন ইংল্যান্ড ক্রিকেট দল।

‘ইংল্যান্ড যেভাবে কাজ করে বিশ্বকাপ জিতেছে আসলে আমাদের সেই কাজর্টাই সুযোগ নিতে হবে। তাদের একটি চার বছর মেয়াদি কর্মপরিকল্পনা ছিল এবং শেষ পর্যন্ত বিশ্বকাপ জিতল। আর এ বিষয়টার দিকেই মনোনিবেশ করতে হবে যেন ভাল একটি দল গড়া যায়। তারা সেটাই করেছে এবং এখন একটা পরিবারের মতো হয়ে উঠেছে যা আগামীতে তাদের জন্য আরও ভাল কিছু বয়ে আনবে’- এভাবেই বলছিলেন গেইল।

বাংলাদেশের এই বছরটা কেটেছে খুব দুর্বিষহ। তার পর মড়ার ওপর খাঁড়ার গা হয়ে এসেছে সাকিবের এক বছরের নিষিদ্ধ হওয়া। একমাত্র সাফল্য বলতে আয়ারল্যান্ডের মাটিতে প্রথম কোনো আন্তর্জাতিক ট্রফি জেতা।জাতীয় দল ও ঘরোয়া ক্রিকেটারদের আন্দোলনে স্থবির হয়ে গেছিলো ক্রিকেটাঙ্গন। আন্দোলন থেকে বেরিয়ে আসলেও মাঠের পারফর্মেন্স খুবই হতাশজনক। যেটা দেখা গেছে ভারতের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে।

গেইলের পরামর্শ হলো চার বছরের দীর্ঘ পরিকল্পনা করে এগিয়ে যেতে হবে। তার এই পরামর্শ বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কর্তাদের কান পর্যন্ত যাবে তো?