আন্দোলনের অংশ হিসেবে সিটি নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি: ফখরুল

নিউজ ডেস্ক:   দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনা এবং দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলনের অংশ হিসেবে ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিয়েছে বলে জানিয়েছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

শুক্রবার দুই সিটিতে দলীয় প্রার্থী তাবিথ আউয়াল ও ইশরাক হোসেনের গণসংযোগে অংশ নিয়ে তিনি এ কথা জানান।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়র প্রার্থী ইশরাক হোসেন আর উত্তর সিটির মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়ালকে সামনে নিয়ে সেই আন্দোলন শুরু করলাম। আজ থেকে নতুন আন্দোলন শুরু হলো। এই আন্দোলন গণতন্ত্র মুক্ত করার আন্দোলন, জনগণকে মুক্ত করার আন্দোলন। এই আন্দোলনে আমাদের মার্কা ধানের শীষ।’

জুমার নামাজ শেষে বায়তুল মোকাররম মসজিদের উত্তর গেটে ঢাকা দক্ষিণের প্রার্থী প্রকৌশলী ইশরাক হোসেনের নির্বাচন গণসংযোগ শুরুর আগে মির্জা ফখরুল বলেন, মিথ্যা মামলায় তিনবারের প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে বন্দি করে রাখা হয়েছে।  খালেদা জিয়া দেশের কথা বলতেন, গণতন্ত্রের কথা বলতেন, দেশের মানুষের কথা বলতেন বলে তাকে ষড়যন্ত্র করে কারাগারে রাখা হয়েছে, যাতে সরকারের যত অন্যায় আছে তার বিরুদ্ধে কেউ যেন কথা বলতে না পারে। দুঃসহ অবস্থা থেকে মুক্ত হতে বিএনপি সংগ্রাম করছে, আন্দোলন করছে। আন্দোলনে অনেক নেতাকর্মী গুম হয়েছেন, আহত হয়েছেন, হত্যার শিকার হয়েছেন। লাখ লাখ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়ে বাড়িছাড়া করা হয়েছে। দেশে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনার আন্দোলনের অংশ হিসেবে তারা সিটি নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন।

এ ছাড়া উত্তরার সাত নম্বর সেক্টর জামে মসজিদ থেকে ভোটের প্রচার শুরু করেন তাবিথ আউয়াল ও বিএনপি নেতারা। উত্তরা ৯ নম্বর সেক্টর ব্রিজ পেরিয়ে ১৪ নম্বর সেক্টরে যাওয়ার পথে তাদের সঙ্গে যোগ দিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, তারা এই নির্বাচনকে খালেদা জিয়ার মুক্তি ও গণতন্ত্রের মুক্তির অংশ হিসেবে নিয়েছেন। তারা বিশ্বাস করেন, গণতন্ত্রের মুক্তির জন্য, খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য জনগণ তাবিথ আউয়ালকে ভোট দেবেন। তারা দেশের গণতন্ত্রকে মুক্ত করবেন।