ময়মনসিংহ বোর্ডে পাশের হার ৮৭.২১ ভাগ, জিপিএ-পাঁচ ৩,৯০৩, শেরপুর জেলা প্রথম

মো. নজরুল ইসলাম, ময়মনসিংহ :

দেশের সর্বকনিষ্ট মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, ময়মনসিংহ সীমিত জনবলের মাধ্যমে প্রতিষ্ঠার মাত্র দেড় বছরের মধ্যে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষা গ্রহন শেষে মঙ্গলবার ফলাফল প্রকাশির হয়েছে। এ বোর্ডের অধীনে পাশের হার শতকরা ৮৭ দশমিক ২১ ভাগ। জিপিএ-৫ পেয়েছে মোট ৩ হাজার ৯০৩ জন । মেয়েরা জিপিএ ৫ প্রাপ্তিতে এগিয়ে রয়েছে।

মঙ্গলবার ৩১ ডিসেম্বর দুপুরে ময়মনসিংহ প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে আনুষ্ঠানিক ভাবে ফলাফল ঘোষণা করে শিক্ষা বোর্ড কতৃপক্ষ। সংবাদ সম্মেলনে ফলাফলের সংক্ষিপ্ত পরিসংখ্যান সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে পড়ে শোনান ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রণ মোঃ শামসুল ইসলাম। এসময় উপস্থিত ছিলেন ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ডের ভাররপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও সচিব অধ্যাপক কিরীট কুমার দত্ত, কলেজ পরিদর্শক মোঃ হাবিবুর রহমান, উপ-সচিব (আইন) মোঃ মশিউল আলম, উপসচিব ( প্রশাসন ও সংস্থাপন) মোঃ মনিরুজ্জামান, সহকারি পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মোহসীনা বেগম ও আইটি বিশেষজ্ঞ ইঞ্জিনিয়ার শেখ নিয়ামূল কবীর প্রমূখ।

ফলাফলের সংক্ষিপ্ত পরিসংখ্যান সূত্রে জানা যায়, ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ডের অধীনে মোট ১ লাখ ৬৫ হাজার ৩৩জন শিক্ষার্থী অংশ নেয়। উত্তীর্ণ হয়েছে মোট ১ লাখ ৬১ হাজার ৩৫৯ জন শিক্ষার্থী। মোট পাশের হার ৮৭ দশমিক ২১ ভাগ। জিপিএ ৫ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীর সংখ্যা ৩ হাজার ৯০৩ জন।

মেয়েরা জিপিএ-৫পেয়েছে মোট ২ হাজার ২৯৯জন আর ছেলেদের মধ্যে জিপিএ ৫ পেয়ে উত্তীর্ণ হয়েছে ১ হাজার ৬০৪ জন। ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ডের মোট ১৭৩ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে শতভাগ পরীক্ষার্থী পাস করেছে। প্রাইম ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজ থেকে ৩জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে কেউ পাশ করতে পারেনি। ময়মনসিংহ শিক্ষা বোর্ডের মাঝে শেরপুর জেলা ৯০.০৫শতাংশ উত্তীর্ণ হয়ে প্রথম স্থানে রয়েছে। জামালপুর জেলা ৮৯.৫২ শতাংশ পেয়ে দ্বিতীয়স্থানে রয়েছে আর ময়মনসিংহ জেলা ৮৫.৮৪শতাংশ পেয়ে তৃতীয়স্থানে রয়েছে । নেত্রকোণা জেলা ৮৫.৭১ শতাংশ পেয়েছে।

উল্লেখ্য, ১ হাজার ৪৮৪ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ১ লাখ ৬৫ হাজার ৩৩ জন পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ নেয় । এর মধ্যে ১ লাখ ৬১ হাজার ৩৫৯ জন উর্ত্তীন হন ।