বিজয় দিবসে প্রতিষ্ঠান ছুটি, শহীদ মিনারে নেই পুষ্পস্তবক অর্পণ!

নিউজ ডেস্ক: সোমবার ১৬ (ডিসেম্বর), মহান  বিজয় দিবসের ৪৮ বছর পূর্ণ হল। বিজয় দিবস  উপলক্ষে সারা দেশের ন্যায় রাজশাহীর (দুর্গাপুর) “কাঁঠালবাড়ীয়া শহীদ আবুল কাশেম স্কুল অ্যান্ড কলেজে” মহান বিজয় দিবসের মিলাদ মহাফিলের আয়োজন করা হয়। কিন্তু উক্ত অনুষ্ঠানে, নেই কোন ছাত্র -ছাত্রী নেই কোন সাজ-সজ্জা, শহীদ মিনারে নেই কোন ফুল, স্কুল অ্যান্ড কলেজের পক্ষ থেকে শহীদ মিনারে নেই কোন পুষ্পস্তবক-অর্পণ ও বিজয়ের কোন মঞ্চ। শুধুই ছিল কিছু শিক্ষকমন্ডলী ও কিছু নেতার উপস্থিতি।  

আওয়ামীলীগ নেতা ও কাঁঠালবাড়ীয়া শহীদ আবুল কাশেম স্কুল অ্যান্ড কলেজের ম্যানাজিং কমিটির সভাপতি মোঃ আশরাফ আলীর সভাপতিত্বে ,অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন- ৫ নং ঝালুকা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ মোজাহার আলী মন্ডল।

বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও দূর্গাপুর উপজেলা বি.আর ডিবির চেয়ারম্যান মোঃ নুরুন নবী চাঁদ, ঝালুকা ইউনিয়ন শাখা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক, বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ রাজশাহী জেলা শাখার সহ-সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ আলামিন ইসলাম, যুবলীগ নেতা মোঃ বাবুল ইসলাম, ৮নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোঃ আউয়াল আলী মোল্লা, ৯ নং ওয়ার্ডের সাবেক আওয়ামীলীগের সভাপতি মোঃ কুদ্দুস মিয়া, সায়বাড় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি মোঃ লাভলু মন্ডল, ৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের নেতা আফসার আলী, মোঃ তাহাজ উদ্দীন, ৯নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি আশরাফুল ও সাধারণ সম্পাদক সুমন আলী সহ স্থানীয় আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেত্রীবৃন্দ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে চেয়ারম্যান মোঃ মোজাহার আলী মন্ডল বঙ্গবন্ধু ও সকল শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন এবং অনুষ্ঠানের সার্বিক চিত্র দেখে বিরক্তি প্রকাশ করে  বলেন, “আপনারা আমাদের ছেলে খেলা মনে করেন যখন যেভাবে ডাকেন তখন সেভাবে উপস্থিত হয়। সেটা বুঝি আমাদের অপরাধ? এভাবে আর উপস্থিত হব না! আপনারা যদি ভালো ভাবে অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন তাহলে আমাদের পাবেন”! 

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বি আর ডিবির চেয়ারম্যান মোঃ নুরুন নবী চাঁদ শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন ও আত্নার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তিনিও অনুষ্ঠানের পরিবেশ দেখে বিরক্তি প্রকাশ করে বলেন, “আজকে বিজয় দিবস বলে আমার কাছে মনেই হচ্ছে না, আপনাদের প্রতিষ্ঠানের অনুষ্ঠানের নমুনা দেখে খুবই অবাক হলাম যা অন্যান্য প্রধান শিক্ষক থাকাকালীন এ রকম বেহাল অবস্থা দেখা যায়নি, আজ ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসের ব্যানার নাই আপনার প্রতিষ্ঠানে, বিষয়টা খুবই লজ্জা জনক”! 

এ ব্যাপারে সভাপতি মোঃ আশরাফ আলী সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, “আমি প্রিন্সিপাল স্যারকে বলেছি এ বিষয়টা দেখতে, আজ সকালে প্রতিষ্ঠানে এসে দেখি কোন কিছুর ব্যবস্থা হয়নি বা কোন ছাত্র-ছাত্রী উপস্থিত নেই, প্রিন্সিপাল মোঃ আমিনুল ইসলামের কাছে কারন জানতে চাইলে তিনি বলেন প্রতিষ্ঠান ছুটি দিয়েছেন”।

নাম প্রকাশে অনেচ্ছুক এলাকাবাসী বলেন,-প্রিন্সিপাল মোঃ আমিনুল ইসলাম আওয়ামীলীগ সরকারের আমলে নিয়োগ পেলেও জামায়াত-বিএনপির রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত থাকার কারনে মহান বিজয় দিবসের মত দিনকে অবহেলায় পালন করছেন। 

এ ব্যাপারে প্রিন্সিপাল মোঃ আমিনুল ইসলামের সাথে যোগাযোগ করতে একাধিকবার চেষ্টা করলেও তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

জাহিদ/ঢাকানিউজ২৪ডটকম।