নতুন বিশ্বসুন্দরী জ্যামাইকার কৃষ্ণকলি টনি-অ্যান সিং

নিউজ ডেস্ক:  কালো মেয়েটির কালো হরিণ-চোখে কত শত কবিতা! কৃষ্ণকলি যেন তারেই বলা যায়। তার পিঠের পরে যেন লোটে মুক্তবেণী। নাম টনি-অ্যান সিং। শ্যামা সৌন্দর্য ও মেধার বিচ্ছুরণে মিস ওয়ার্ল্ডের আলো নিজের করে নিলেন তিনি। তার মাথাতেই উঠেছে বিশ্বসুন্দরীর মুকুট।

নতুন মিস ওয়ার্ল্ডকে নীল রঙা মুকুট পরিয়ে দেন গতবারের বিশ্বসুন্দরী মেক্সিকোর ভ্যানেসা পনসে দেলেওন। শনিবার (১৪ ডিসেম্বর) যুক্তরাজ্যের লন্ডনে এক্সেল এরেনায় অনুষ্ঠিত মিস ওয়ার্ল্ডের গ্র্যান্ড ফিনালেতে বিজয়ীনির নাম ঘোষণা করেন মিস ওয়ার্ল্ড অর্গানাইজেশনের চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জুলিয়া মোরলি। তার মুখে নিজের নাম শুনে বিস্মিত হন টনি। যেন বিশ্বাসই হচ্ছিল না এমন অভিব্যক্তি ফুটে ওঠে কৃষ্ণাঙ্গ এই সুন্দরীর দু’চোখে।

২৬ বছর পর মিস ওয়ার্ল্ডের মুকুট ফিরলো জ্যামাইকায়। ১৯৬৩, ১৯৭৬ ও ১৯৯৩ সালে তিনবার দেশটির সুন্দরীরা এই স্বীকৃতি জিতেছিলেন। ১১০ দেশের সুন্দরীদের হটিয়ে চতুর্থবারের মতো এটি দেশকে উপহার দিলেন টনি-অ্যান সিং।

ফ্লোরিয়া স্টেট ইউনিভার্সিটিতে মনোবিজ্ঞানের ছাত্রী তিনি। চিকিৎসক হওয়ার স্বপ্ন বাসা বেঁধেছেন বুকে। অবসরে গান গেয়ে ও রান্না করে সময় কাটে তার।