আ’লীগের নেতৃত্বে ঢাকা উত্তরে বজলুর-কচি, দক্ষিণে মান্নাফি-হুমায়ুন

নিউজ ডেস্ক:   ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি হয়েছেন শেখ বজলুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন মান্নান কচি। আর দক্ষিণের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন যথাক্রমে আবু আহাম্মদ মান্নাফি ও হুমায়ুন কবির।

শনিবার বিকেলে রাজধানীর রমনায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত কাউন্সিল অধিবেশনে মহানগর আওয়ামী লীগের এই দুই অংশের নতুন নেতাদের নাম ঘোষণা করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

এর আগে সকাল ১১টার দিকে রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

ঢাকা মহানগরীর সব থানা, ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন কমিটি মিলিয়ে প্রায় দুই হাজার কাউন্সিলর এবং প্রায় তিন হাজার ডেলিগেট সম্মেলনে যোগ দেন।

মহানগর দক্ষিণের সভাপতি মান্নাফি ও সাধারণ সম্পাদক হুামায়ুন কবির দুইজনই গত কমিটিতে সহ-সভাপতি ছিলেন। আর উত্তরের সভাপতি বজলুর ছিলেন গত কমিটির সহ-সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক কচি ছিলেন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।

২০১২ সালের ২৭ ডিসেম্বর অবিভক্ত ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সর্বশেষ সম্মেলন হয়। এর তিন বছর পর নগর আওয়ামী লীগকে উত্তর ও দক্ষিণে বিভক্ত করা হয়।

২০১৬ সালের ১০ এপ্রিল মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তর-দক্ষিণ, ৪৫টি থানা এবং ১০০টি ওয়ার্ড ও সব ইউনিয়নের সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করা হয়।

মহানগর উত্তরে একেএম রহমতুল্লাহকে সভাপতি ও সাদেক খানকে সাধারণ সম্পাদক এবং দক্ষিণে হাজী আবুল হাসনাতকে সভাপতি ও শাহে আলম মুরাদকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়। একই বছরের ১১ সেপ্টেম্বর দুই অংশের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়।