সিপিবির পদযাত্রায় আওয়ামী লীগ কর্মীদের হামলা

নিউজ ডেস্ক:   জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলায় বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) পদযাত্রায় আওয়ামী লীগ কর্মীদের হামলায় সিপিবির কেন্দ্রীয় নেতা মঞ্জুরুল আহসান খানসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে উপজেলার বালিজুড়ি বাজারের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে।

পদযাত্রায় অংশগ্রহণকারী সিপিবি নেতা-কর্মীরা জানান, জনগণের ভোটাধিকার নিশ্চিতকরণ, নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন ও সংখ্যানুপাতিক হারে নির্বাচন ব্যবস্থা চালু করা, দ্রব্যমূল্যের দাম সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে আনা এবং কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় দখলমুক্ত করাসহ ১৭ দফা দাবিতে সকালে জামালপুর জেলা সিপিবি আয়োজিত সিপিবির কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা ও সাবেক সভাপতি মনজুরুল আহসান খানের নেতৃত্বে একটি পদযাত্রা মিছিল বের হয়। মিছিলটি ইসলামপুর, মেলান্দহ হয়ে সন্ধ্যা সাড়ে সাতটার দিকে মাদারগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পৌঁছে।

সিপিবির দাবি, এ সময় জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু শ্লোগান দিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের একদল নেতা-কর্মী পদযাত্রা মিছিলে অতর্কিতে হামলা চালায়। হামলায় সিপিবি নেতা মনজুরুল আহসান খান, হযরত আলী, শিবলুল বারী রাজু, আলী আক্কাছ, মারুফ আহাম্মেদ খান মানিকসহ কমপক্ষে ১০ জন আহত হন। হামলাকারীরা সিপিবির পদযাত্রার ব্যানার ছিঁড়ে, মাইক ও ইজিবাইক ভাঙচুর করে। হামলার খবর পেয়ে মাদারগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

সিপিবির জামালপুর জেলা শাখার সহ-সাধারণ সম্পাদক মারুফ আহাম্মেদ খান মানিক দাবি করেন, আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীরা পদযাত্রায় হামলা করে।

মাদারগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক নাজমুল ইসলাম লিখন জানান, এ রকম কোন ঘটনা ঘটেনি। তিনি আরো বলেন, কে বা কারা হামলা চালিয়েছে আমি তাদের পরিচয় জানি না।

এ বিষয়ে মাদারগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম জানান, ছাত্রলীগ যুবলীগের কোন সদস্য এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত নয়। কে বা কারা ব্যানার, ফেস্টুন ছিড়েছে তা আমার জানা নেই।

মাদারগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম জানান, পথসভা চলার সময় হামলা চালিয়ে ব্যানার, ফেস্টুন ছিঁড়ে ফেলার কথা শুনেছি। তবে কারও গায়ে হাত দেওয়ার কোন ঘটনা জানি না।