পূর্ত মন্ত্রণালয় থেকে গুরুত্বপূর্ণ নথি উধাও!

নিউজ ডেস্ক:   গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের পিছু ছাড়ছে না অনিয়ম-দুর্নীতি। রূপপুর বালিশ কেলেঙ্কারির পর এবার খোদ মন্ত্রণালয় থেকে কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথি গায়েব হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসব নথির মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে কিছু উন্নয়নকাজের পুনঃদরপত্র আহ্বান এবং নিয়োগসংক্রান্ত নথি। এছাড়া আবাসন পরিদপ্তরের সহকারী পরিচালকের বিরুদ্ধে তদন্তসংক্রান্ত নথিও গায়েব হয়েছে বলে জানা গেছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শুদ্ধি অভিযানের আওতায় গ্রেফতার হওয়া জি কে শামীম ছিলেন গণপূর্তের ৮০ শতাংশ কাজের ঠিকাদার। জি কে শামীমকে অবৈধভাবে কাজ পাইয়ে দিয়ে লাভবান হয়েছেন এমন অভিযোগে ইতিমধ্যে বেশ কিছু প্রকৌশলীকে চাকরি থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

সূত্র বলছে, সম্প্রতি জি কে শামীমের অধীনে থাকা উন্নয়নকাজগুলো দ্রুত শেষ করার জন্য সেসব কাজের পুনঃদরপত্র আহ্বানের সিদ্ধান্ত নেয় মন্ত্রণালয়। সে অনুযায়ী নথিও প্রস্তুত করা হয়। এছাড়া যেসব প্রকৌশলী পদে নিয়োগ দরকার, সেসব পদে নিয়োগ বা পদায়নের জন্যও নথি প্রস্তুত করা হয়। এসব পদের মধ্যে রয়েছে অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী ও উপপ্রকৌশলীর কিছু পদ।

জানা গেছে, সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রস্তাবগুলো মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট নিম্ন শাখা থেকে পাঠানো হলেও গত এক সপ্তাহেও সেগুলোর নিষ্পত্তি করা যায়নি। অনুসন্ধানে জানা যায়, এসব নথি কার কাছে রয়েছে সে কথা কেউ স্বীকার করছেন না। ধারণা করা হচ্ছে, এগুলো সরিয়ে ফেলা হয়েছে, নয়তো অসত্ উদ্দেশ্যে সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন বিলম্বিত করা হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে মন্ত্রণালয়ের কেউ দায়িত্ব স্বীকার করতে চাননি। গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, নথি এখনো গতকাল বুধবার দুপুর পর্যন্ত তার কাছে পৌঁছায়নি। কোথায় সেসব নথি রয়েছে, সে সম্পর্কে সুনির্দিষ্ট তথ্যও পাওয়া যায়নি। তবে তার ধারণা কোথাও না কোথাও সেগুলো আছে, হয়তো পাওয়া যাবে।