পেনশনার সঞ্চয়পত্র ক্রয়ে দুর্ভোগে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্তরা

সুমন দত্ত: সঞ্চয়পত্র কেনার সিস্টেম আধুনিক করতে গিয়ে দুর্ভোগে পড়ছে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্তরা। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক কর্মকর্তাদের পিপিও ( পেনশন পেমেন্ট অর্ডার) নম্বর না থাকার কারণে এমনটা হচ্ছে।

মঙ্গলবার ঢাকা সদর প্রধান ডাকঘরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন অবসরপ্রাপ্ত অফিসার পেনশনার সঞ্চয়পত্র কিনতে গিয়ে এই ভোগান্তিতে পড়েন। অগত্যা ডাকঘর কর্তৃপক্ষ তাকে ৩ দিন পর যোগাযোগ করতে বলেন। এর আগে অবসরপ্রাপ্ত এই কর্মকর্তা একই স্থান থেকে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র জমা দিয়ে পেনশনার সঞ্চয়পত্র কিনেছিলেন। সেই সঞ্চয়পত্রের মেয়াদ শেষ হলে নতুন করে কিনতে গিয়ে তিনি এই বিপত্তিতে পড়েন।

অনুসন্ধানে জানা যায়, বর্তমানে সরকারি কর্মচারীরা অবসর নিলে তাদেরকে একটি বই দেয়া হয়। সেই বইয়ের উপরে পিপিও নম্বর থাকে। পাশাপাশি পেনশনভোগীর যাবতীয় তথ্য ওই বইয়ে থাকে।

পিপিও নাম্বার প্রসঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্টার শাখায় যোগাযোগ করা হয়। যিনি বিষয়টি দেখভাল করেন তিনি বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পিপিও নম্বর মেইনটেইন করে কাউকে পেনশন দেয় না। নতুন করে যারা পুনরায় পেনশন পাচ্ছেন তাদেরকেও কোনো পিপিও নম্বর দেয়া হয় না। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ পেনশনের জন্য একটি বই মেইনটেইন করেন। যেখানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সব পেনশনভোগীর তথ্য থাকে। যাকে তারা লেজার বই বলেন। এর বাইরে তাদের আর কোনো নথি নেই।

এদিকে ঢাকা সদর প্রধান ডাকঘরে যারা সঞ্চয়পত্র বিক্রি করছেন তারা এ বিষয়টি জানেন না। এ কারণে তারা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে যারা পেনশন পেয়েছেন তাদের কাছে নতুন সিস্টেম অনুসারে সঞ্চয়পত্র বিক্রি করতে পারছেন না। এজন্য তারা নতুন সফটওয়ারের পিপিও নাম্বারের বিষয়টিকে দায়ী করছেন। আগে এসব লাগতো না বলে তারা জানান।

পোস্ট অফিসের দায়িত্বপ্রাপ্ত এক কর্মকর্তা ঢাকা নিউজের বিশেষ প্রতিনিধিকে কম্পিউটার খুলে বিষয়টি দেখান। সেখানে দেখা যাচ্ছে জাতীয় সঞ্চয়পত্র ব্যুরো যে নতুন সফটওয়ার তৈরি করেছে তাতে পিপিও নম্বর দেয়া বাধ্যতামূলক। ফরমের ওই জায়গা খালি রেখে কোনো পেনশনার সঞ্চয়পত্র নিবন্ধন করা যাচ্ছে না।

যিনি সঞ্চয়পত্র বুর‍্যোর এই সফটওয়ার ডিজাইন করেছেন তিনি হয়ত জানেন না অনেক অফিস পিপিও নাম্বার মেইনটেইন করে না। যদি জানতেন তবে বিকল্প ব্যবস্থা ফরমে রাখতেন। সফটওয়ার তৈরির এই ত্রুটি দুর্ভোগে ফেলছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো কিছু স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের অবসরপ্রাপ্তদের।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম