লংকান প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিলেন গোটাবায়া রাজাপাকসে

নিউজ ডেস্ক:   শ্রীলংকার নতুন প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ নিয়েছেন গোটাবায়া রাজাপাকসে। সোমবার উত্তর মধ্যাঞ্চল প্রদেশের ঐতিহ্যবাহী অনুরাধাপুর শহরের একটি প্রাচীন বৌদ্ধ মন্দিরে শপথ নেন তিনি। তাকে শপথবাক্য পাঠ করান প্রধান বিচারপতি জয়ন্ত জয়সুরিয়া। খবর রয়টার্সের।

শপথ নিয়ে জাতীয় নিরাপত্তা প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন গোটাবায়া। তার বিরুদ্ধে ভোট দেওয়ায় সংখ্যালঘু তামিল ও মুসলিমদেরকেও তাকে সমর্থন জানানোর আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। গোটাবায় বলেন, সংখ্যাগরিষ্ঠ সিংহলি জনগোষ্ঠী (যাদের বেশিরভাগই বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বী) তার জয়ে বড় ভুমিকা রেখেছে। তারপরও দেশের উন্নয়নের স্বার্থে তিনি তামিল ও মুসলিমদেরও সমর্থন আশা করেন।

গত এপ্রিলে ইস্টারের দিনে শ্রীলংকায় জঙ্গি হামলার পর গোটাবায়া তার নির্বাচনী প্রচারে মানুষকে নিরাপত্তার আশ্বাস দিয়েছিলেন। ওই হামলার পর সংখ্যাগরিষ্ঠ সিংহলি বৌদ্ধ ও তামিল মুসলিমদের মধ্যে বিভেদের সৃষ্টি হয়। এই বিভক্তি গোটাবায়াকে ভোটে জিততে সহায়তা করে। গতকাল শপথ শেষে দেওয়া বক্তব্যে তিনি আরও বলেন, ‘দেশের জাতীয় নিরাপত্তা নিশ্চিত করাটাকেই আমি আমার সরকারের প্রথম ও প্রধান দায়িত্ব বলে মনে করি।’ তিনি রাষ্ট্রের নিরাপত্তা যন্ত্রকে নতুন করে গড়ে তুলবেন বলেও জানান।

একইসঙ্গে গোটাবায়া সিংহলি সংস্কৃতি, ঐতিহ্য রক্ষারও প্রতিশ্রুতি দেন। অন্যদিকে, বৈদেশিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে নিরপেক্ষ অবস্থান বজায় রাখা হবে বলে জানান নতুন প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেন, ‘আমরা বিশ্বশক্তিগুলোর মধ্যকার সংঘাত থেকে দুরে থাকতে চাই। আমি সব দেশকে আমাদের দেশের একতা ও সার্বভৌমত্বের প্রতি সম্মান রেখে কাজ করার অনুরোধ করছি।’

৭০ বছর বয়সী গোটাবায়া শ্রীলংকার গৃহযুদ্ধকালীন প্রতিরক্ষামন্ত্রী ও সাবেক প্রেসিডেন্ট মাহিন্দা রাজাপাকসের ভাই। তামিল গেরিলাদের পরাস্ত করে তিনি দীর্ঘ গৃহযুদ্ধের অবসান ঘটান। কিন্তু এরপর থেকেই গোটাবায়ার বিরুদ্ধে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগের কারণে সংখ্যালঘুরা তাকে নিয়ে শঙ্কিত।