সেন্টমার্টিনে সোলারপ্যানেলে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ

নিউজ ডেস্ক:    দেশের বিভিন্ন এলাকায় লোডশেডিং থাকলেও সাগর কন্যা এবং পর্যটন রাণী প্রবালদ্বীপ সেন্টমার্টিনে কোন ধরণের লোডশেডিং নেই। লোডশেডিং ছাড়া সারাদিন অবাধে বিদ্যুৎ সরবরাহ থাকায় স্থানীয় জনসাধারণ এবং পর্যটকরা সোলার বিদ্যুতের সুফল ভোগ করছেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ব্লুমেরিন এনার্জি লিমিটেড নামের বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান সেন্টমার্টিন সোলার মিনি গ্রিড পাওয়ার স্টেশনের মাধ্যমে পুরো দ্বীপে ২৪ ঘণ্টা বিদ্যুৎ সরবরাহ দিচ্ছেন। সেন্টমার্টিন কোনারপাড়ায় বিশাল এলাকা জুড়ে সৌর প্যানেল বসানো হয়েছে।

বিদ্যুৎ প্রকল্পে কর্মরত লোকজন জানায়, প্রকল্পে প্রতি প্যানেল ২৭০ওয়াট ক্ষমতা সম্পন্ন সর্বমোট ৯১৫টি সৌর পেনেল স্থাপন করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে উক্ত প্রকল্প থেকে ২৪৯.৬ কিলোওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হবে। জাপানী সংস্থা জাইকার সহযোগিতায় আইডিসিওলের অর্থায়ানে প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে ৯৮মিলিয়ন টাকা।

ইতিমধ্যে সেন্টমার্টিনে ৩৩৬টি বাড়ি, ১৩৬টি দোকান, ২১টি রেস্টুরেন্ট, ২২টি রিসোর্ট, ১টি কোল্ড স্টোর, ১৫টি ইজিবাইক, স্কুল, মসজিদ, হাসপাতালসহ ১০টি সামাজিক প্রতিষ্ঠানে বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান করা হয়েছে। প্রি-পেইড মিটারের মাধ্যমে গ্রাহকদের বিদ্যুৎ সেবা দেয়া হচ্ছে। প্রি-পেইড মিটারের মাধ্যমে অতিরিক্ত টাকা আদায় করা হচ্ছে মনে হলেও দ্বীপের ব্যবসায়ীরা এটিকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন। কারণ তারা দিবারাত্রি নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ পাচ্ছেন।

সেন্টমার্টিন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মুজিবুর রহমান জানান, বিদ্যুৎ নিয়ে আমরা খুব আরামে আছি। দিন-রাতে কখনো লোডশেডিং হয় না। সোলার বিদ্যুতে আলোকিত হয়েছে প্রবালদ্বীপ জানিয়ে তিনি আরো বলেন, পর্যটকরা দিবারাত্রি নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সেবা পাচ্ছেন।

বিদ্যুৎ প্রকল্পের ইঞ্জিনিয়ার আবুল কালাম জানান, সেন্টমার্টিন সোলার মিনি গ্রিড পাওয়ার স্টেশনের মাধ্যমে দ্বীপে ২৪ ঘণ্টা নিরবিচ্ছিন্নভাবে বিদ্যুৎ সরবরাহ দেয়া হচ্ছে।