রাওয়া ক্লাবে মেজর আবদুল গনিকে স্মরণ

নিউজ ডেস্ক:  মহান মুক্তিযুদ্ধের অগ্রসেনানী দল ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্টের প্রতিষ্ঠাতা বঙ্গশার্দুল মেজর আবদুল গনির ৬৩তম প্রয়াণ দিবস উপলক্ষে রাওয়া এবং মেজর গনি পরিষদের যৌথ উদ্যোগে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। শনিবার সকালে রাওয়া হেলমেট হলে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

অনুষ্ঠানে মেজর আবদুল গনির রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া করা হয়। রাওয়া চেয়ারম্যান মেজর খন্দকার নুরুল আফসারের সভাপতিত্বে স্বাগত

বক্তব্য রাখেন রাওয়া সেক্রেটারি জেনারেল লে. কর্নেল মো. সামসুল ইসলাম। বক্তব্য রাখেন মেজর গনি পরিষদের মহাসচিব মো. আনোয়ারুল ইসলাম ভূঞা। প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কর্নেল মো. আবদুল হক।

আলোচনায় অংশ নেন মেজর জেনারেল ইমামুজ্জামান বীরবিক্রম, সাংবাদিক শওকত মাহমুদ, ইঞ্জিনিয়ার মো. হাবিব আহসান, মেজর জেনারেল এএলএম ফজলুর রহমান, মেজর জেনারেল জামিল ডি আহসান বীরপ্রতীক, ব্রি. জেনারেল মোহাম্মদ শাহেদুল আনাম খান, সাবেক সেনা প্রধান লে. জে. মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, সাবেব সেনাপ্রধান লে. জে. মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান, সাবেক সেনাপ্রধান লে. জে. মোহাম্মদ নুরুদ্দীন খান, মেজর জেনারেল সৈয়দ মোহাম্মদ ইবরাহিম বীরপ্রতীক, সাংবাদিক নাইমুল ইসলাম খান, লে. কর্নেল লুৎফুল হক, মেজর জেনারেল কাজী মোহাম্মদ শফিউল্লাহ বীরউত্তম, মেজর গনি পরিষদের সভাপতি মো. হুমায়ুন কবির প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, ইস্ট বেঙ্গল রেজিমেন্ট গঠন ছিল গোটা উপমহাদেশের বাঙালি সৈন্যদের অভূতপূর্ব বীরত্বেরই স্বীকৃতি। সারা দেশ থেকে তরুণদের উদ্বুদ্ধ করে মেজর গনি এই রেজিমেন্ট গঠন করেন। পাকিস্তানি অসহযোগিতার কারণে তিনি ১৯৫৩ সালে সেনাবাহিনী থেকে পদত্যাগ করতে বাধ্য হন। পরে ১৯৫৪ সালের নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে প্রাদেশিক পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হয়ে জনসেবায় আত্মনিয়োগ করেন। কিংবদন্তি এই মানুষটি ১৯৫৭ সালে পশ্চিম জার্মানিতে মারা যান।