দেশের পথে খোকার মরদেহবাহী বিমান

নিউজ ডেস্ক:   বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ও অবিভক্ত ঢাকার সাবেক মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা সাদেক হোসেন খোকার মরদেহবাহী বিমান ঢাকার উদ্দেশে নিউইয়র্ক ছেড়েছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে তার মরদেহবাহী বিমানটির হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছানোর কথা রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় মঙ্গলবার রাত ১১টায় জেএফকে বিমানবন্দর থেকে এমিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে খোকার মরদেহ ঢাকার উদ্দেশে রওনা হয়েছে। মরদেহের সঙ্গে রয়েছেন খোকার স্ত্রী ইসমত হোসেন, দুই ছেলে প্রকৌশলী ইশরাক হোসেন ও ইশফাক হোসেন, একমাত্র মেয়ে সারিকা সাদেক ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম।

সাদেক হোসেন খোকার শ্যালক শফিউল আলম আজম খান জানান, পরিবারের পক্ষ থেকে তার মরদেহ ঢাকায় আনা হচ্ছে। তার শেষ ইচ্ছা অনুযায়ী জুরাইন কবরস্থানে মা-বাবার কবরের পাশে তাকে দাফন করা হবে।

তিনি আরও বলেন, দুই বছর আগে সাদেক হোসেন খোকার বাংলাদেশ পাসপোর্টের মেয়াদ শেষ হওয়ার পর নিউইয়র্কে বাংলাদেশ দূতাবাসে তিনি মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন করেও জবাব পাননি। পরে তাদের পরিবারের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ দূতাবাসে ট্রাভেল ডকুমেন্ট আবেদনের পর কাগজ হাতে পেয়ে তারা রওনা হয়েছেন।

জানা গেছে, সাদেক হোসেন খোকার মরদেহ ঢাকায় পৌঁছানোর পর বেলা সাড়ে ১১টায় জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় দেশে তার প্রথম জানাজা হবে। সেখান থেকে নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের সামনে তাকে নেওয়া হবে। দলের পক্ষ থেকে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা প্রয়াত খোকার মরদেহে ফুলেল শ্রদ্ধা জানাবেন। বাদ জোহর দলীয় কার্যালয়ের সামনে জানাজা হবে। সেখান থেকে তার নিজ জন্মস্থান রাজধানীর গোপীবাগ নেওয়া হবে মরদেহ। বিকেলে গোপীবাগ ও ধুপখোলা মাঠে খোকার আরও দুটি জানাজা হওয়ার কথা রয়েছে।

উল্লেখ্য, নিউইয়র্কের মানহাটানে মেমোরিয়াল স্লোন ক্যাটারিং ক্যানসার সেন্টার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন সাদেক হোসেন খোকা। সেখানে বাংলাদেশ সময় সোমবার দুপুর ১টার দিকে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর।