খাগোশিকে হত্যার সবুজ সংকেত দিয়েছিলেন ট্রাম্প জামাতা!

নিউজ ডেস্ক:    সৌদি আরবের সাংবাদিক জামাল খাগোশিকে হত্যার পূর্বে গ্রেফতার করতে সৌদি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমানকে সবুজ সংকেত দিয়েছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উপদেষ্টা ও জামাতা জারেড কুশনার। এক সূত্রের বরাত দিয়ে সোমবার এ খবর প্রকাশ করেছে ডেইলি মেইল।

ডেইলি মেইল জানিয়েছে, সৌদি আরবের সাংবাদিক জামাল খাগোশিকে গ্রেফতার করতে ট্রাম্পের জামাতা জারেড কুশনার ফোনে নির্দেশ নিয়েছিলেন। তুরস্কের গোয়েন্দা সংস্থার কাছে সে কথোপকথনের রেকর্ড রয়েছে।

সৌদি যুবরাজ সালমানের সঙ্গে ট্রাম্প জামাতার ঘনিষ্ঠ বন্ধুত্বের খবর বেশ পুরোনো। খাগোশি ইস্যুতে ট্রাম্প জামাতার জড়িত থাকার খবর সত্যি হলে বেশ বিপাকে পড়তে যাচ্ছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কারণ ইউক্রেন ইস্যুতে তার বিরুদ্ধে মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের এক তদন্তকারী দল কাজ করছে।

এদিকে ব্রিটিশ সাপ্তাহিক ‘দ্য স্পেক্টেটর’ এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ইউক্রেন ইস্যুতে ডেমোক্রেটিক নেতৃত্বাধীন মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদের তদন্ত দল খাগোশিকে হত্যায় ট্রাম্প প্রশাসনের জড়িত থাকার বিষয়টি অবগত আছেন। তারা এটি নিয়ে আরও তদন্ত করার চিন্তা করছেন।

উল্লেখ্য, সাংবাদিক জামাল খাগোশি ওয়াশিংটন পোস্টের কলামিস্ট ছিলেন। সৌদি রাজপরিবারের খুব ঘনিষ্ঠ বন্ধু হিসেবে তিনি এক সময় পরিচিত ছিলেন। তবে পরবর্তীতে তিনি সৌদি সরকারের বিভিন্ন নীতির কঠোর সমালোচক হয়ে উঠেন। ২০১৮ সালে তুরস্কে অবস্থিত সৌদি দূতাবাসে বিয়ে সংক্রান্ত ডকুমেন্ট আনতে গিয়ে আর ফেরেননি খাগোশি। তুরস্ক তখন থেকে দাবি করে আসছে খাগোশিকে হত্যা করে লাশ গুম করে ফেলা হয়েছে।