সাকিব ম্যাচ পাতানোর প্রস্তাব বোর্ড বা আইসিসিকে জানাননি

নিউজ ডেস্ক:   কয়েকদিন ধরেই দেশের ক্রিকেটপাড়ার প্রায় সবার মুখে একটাই প্রশ্ন, সাকিব আল হাসান কি যাচ্ছেন ভারত সফরে? নাকি গ্রামীণফোনের সঙ্গে চুক্তির দায়ে তাকে ছেড়েই দল চলে যাচ্ছে? এর সঙ্গে সাকিবের অনুশীলনে যোগ না দেওয়া ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের বক্তব্য সেই প্রশ্নের সঙ্গে যোগ করে ভিন্ন মাত্রা। সোমবার রাত পর্যন্ত সাকিবের ভারত সফর নিয়ে চলছিল নানা আলোচনা। এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু না বললেও সাকিব আল হাসান আদৌ ভারত সফরে যাচ্ছেন কি না, সে বিষয়ে মঙ্গলবার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানান বিসিবির ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান।

রাতের প্রথম প্রহরেই বাংলাদেশের ক্রিকেটের ভক্ত ও সমর্থকদের মাথায় বাজ পড়ার উপক্রম হল একটি জাতীয় দৈনিকের প্রথম পাতার প্রধান খবরে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) দুর্নীতি দমন সংস্থা অ্যান্টিকরাপশন অ্যান্ড সিকিউরিটি ইউনিটের (আকসু) রায়ে ১৮ মাসের জন্য সব ফরম্যাট থেকে নিষিদ্ধ হতে পারেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের টি-২০ ও টেস্ট দলের অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। তার বিরুদ্ধে ম্যাচ পাতানো কিংবা অনৈতিক আর্থিক সুবিধা গ্রহণের কোনো অভিযোগ নেই। বরং ম্যাচ পাতানোর প্রস্তাব পেয়ে তা গ্রহণ না করলেও এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট বোর্ড বা আইসিসিকে কিছুই জানাননি তিনি।