ক্রীড়া প্রতিষ্ঠানে যেন ক্যাসিনো না হয়: গণপূর্তমন্ত্রী

নিউজ ডেস্ক:   ক্রীড়া প্রতিষ্ঠান যেন ক্যাসিনো বা অনৈতিক প্রতিষ্ঠানে পরিণত না হয় সে বিষয়ে সবাইকে সর্তক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ এ্যাথলেটিক ফেডারেশনের উদ্যোগে আয়োজিত ৩৫তম জাতীয় জুনিয়র (বয়সভিত্তিক) এ্যাথলেটিক প্রতিযোগিতা ২০১৯ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান।

মন্ত্রী বলেন, ‘ক্রীড়া প্রতিষ্ঠানে অনৈতিকতায় যিনি জড়িয়ে যাবেন, তাকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বরদাশত করবেন না। কিছু কিছু ক্রীড়া প্রতিষ্ঠানের নাম ব্যবহার করে অনৈতিক কাজ করার কারণে ক্রীড়াঙ্গনের বড় ধরনের ক্ষতি হয়ে গেছে। সে জায়গা থেকে উত্তরণে সকলে মিলে কাজ করতে হবে। ক্রীড়াবিদদের স্বপ্ন যেন কারো ভুলে নষ্ট না হয়ে যায়।’

তিনি বলেন, ‘বর্তমান সরকার ক্রীড়া-বান্ধব সরকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে ক্রীড়াঙ্গনে পৃষ্ঠপোষকতা প্রদান করেন, ক্রীড়াবিদদের বিকাশে ভূমিকা পালন করেন এ রকম দৃষ্টান্ত উপমহাদেশে দ্বিতীয়টি নেই। আজকের জুনিয়র ক্রীড়াবিদরাই আগামী দিনে সারা পৃথিবীতে আমাদের অ্যাম্বাসেডর হবে। বিশ্ব পরিমণ্ডলে বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল করে অনন্য নজির সৃষ্টি করবে।’

সরকার ক্রীড়াকে সকল পৃষ্ঠপোষকতা দিতে প্রস্তুত– একথা জানিয়ে মন্ত্রী আরও বলেন, ‘তবে ক্রীড়াবিদদের ক্রীড়ার প্রতি মনযোগী হতে হবে, আন্তরিক ও নিষ্ঠাবান হতে হবে। দেশের মুখ উজ্জ্বল করতে হবে। নৈতিকতা ও মূল্যবোধের অবক্ষয় থেকে বেরিয়ে আসতে হলে ক্রীড়া চর্চার কোনো বিকল্প নেই। ক্রীড়া চর্চার মাধ্যমে শহর থেকে গ্রাম– সবখানে সকলকে উজ্জীবিত করে তুলতে হবে।’

বাংলাদেশ এ্যাথলেটিক ফেডারেশনের সহ-সভাপতি তোফাজ্জল হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন বিশেষ অতিথি আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক হারুনুর রশীদ, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এম আমিন উদ্দিন, ওয়ালটন গ্রুপের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর এফ এম ইকবাল বিন আনোয়ার ডন।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন এ্যাথলেটিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুর রকিব মন্টু। অনুষ্ঠান শেষে বিজয়ী কয়েকজন প্রতিযোগীর হাতে পুরস্কার তুলে দেন গৃহায়নমন্ত্রী।