ঢাবির কার্জনহল থেকে মরাদেহ উদ্ধার

ওবায়দুর রহমান সোহান, ঢাবি প্রতিনিধি :   ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জনহলের অভ্যন্তরে, জানালার গ্রিলের সঙ্গে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় এক মরদেহ উদ্ধার করেছে শাহবাগ থানা পুলিশ।

মৃত ব্যক্তির নাম সেলিম হাওলাদার (৪০)। বুধবার সকাল ৮টার দিকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। পরে শাহবাগ থানা পুলিশ ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহটি ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র থেকে জানা যায়, সেলিম হাওলাদার ঢাবি ক্যাম্পাসের ভিতরে চা বিক্রি করতো। মরদেহটি রসায়ন অনুষদ ভবনের নিচ তলার বাইরের গ্রিলের সঙ্গে গলায় সাদা ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস লাগানো অবস্থায় ছিল। তার আত্মহত্যার কারণ সুস্পষ্টভাবে এখনো না জানা গেলেও ধারণা করা হচ্ছে পারিবারিক অশান্তির কারণে সে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তবে গভীর তদন্তের জন্য পুলিশ কাজ করছে বলে জানা গেছে। তার বাড়ি পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলায়।

মরদেহের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান। বিষয়টি নিশ্চিত করে তিনি বলেন, সকালে অজ্ঞাত পরিচয়ে আমরা ঢাবির কার্জন হল থেকে একটি লাশ উদ্ধার করে। লাশটি ময়না তদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে তিনি আত্মহত্যা করেছেন। তবে বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে।

এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ.কে.এম গোলাম রব্বানী বলেন, সেলিম নামে লোকটি কার্জন হলে চায়ের দোকানে কাজ করতো। সকালে তার মরদেহ কার্জন হলে পাওয়া গেছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে সে আত্মহত্যা করেছে। তার মরদেহ আমরা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছি ।