অমিত সাহা ইসকন সদস্য নয়: ইসকন

সুমন দত্ত: আলোচিত বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ রাব্বী হত্যাকান্ডে ইসকনকে জড়িয়ে সংবাদ পরিবেশন করায় প্রতিবাদ জানিয়েছে সংগঠনটির বাংলাদেশ শাখার সাধার সম্পাদক শ্রী চারু চন্দ্র দাস ব্রহ্মচারী। ১৫ অক্টোবর ইসকনের পক্ষ থেকে দেশে বিভিন্ন গণমাধ্যমে একটি চিঠি পাঠানো হয়। ঢাকানিউজ২৪ডটকমের বিশেষ প্রতিনিধির কাছেও এই চিঠি এসেছে।

চিঠিতে ইসকন পরিষ্কার ভাষায় বলেছে বুয়েটের মেধাবী ছাত্র আবরার হত্যাকান্ডে ইসকনের কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। আবরার হত্যার আসামী অমিত সাহাকে ইসকন সদস্য বানিয়ে যে অপপ্রচার জাতীয় দুইটি দৈনিক করা হয় তা মিথ্যা ও বানোয়াট। এর তীব্র নিন্দা জানায় ইসকন।

ইসকনের চিঠিতে বলা হয়, গত ১১ অক্টোবর আমিত সাহাকে উগ্রবাদী ইসকনের সদস্য বানিয়ে দৈনিক নয়দিগন্ত ও দৈনিক ইনকিলাব যে খবর প্রকাশ করেছে তা মিথ্যা ও বানোয়াট। অমিত সাহা ইসকনের কোনো সদস্য নয়। তার ফেসবুক পেজের লাইককে ভিত্তি করে এ ধরনের খবর প্রচার উদ্দেশ্যপ্রনোদিত ও ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের মতো।

বাংলাদেশসহ সারাবিশ্বে ইসকন কোনো উগ্রপন্থি কাজে জড়িয়েছে এমন কোনো নজির নেই।

ইসকন একটি অরাজনৈতিক, ধর্মীয় ও সামাজিক সংগঠন। এমনটা জানা সত্ত্বেও নয়া দিগন্ত ও ইনকিলাব ধারাবাহিকভাবে ইসকনকে উগ্রবাদী সংগঠন বলে সংবাদ প্রকাশ করছে। যা অ-পেশাদারী সাংবাদিকতার বহি:প্রকাশ।

ইসকন সারা বিশ্বের দরিদ্রপীড়িত মানুষের মাঝে বিনামূল্যে খাদ্য বিতরণ, চিকিৎসা, বস্ত্রদান ইত্যাদি জনহিতকর কর্মসূচি পালন করে যাচ্ছে। ইসকন শ্রী চৈতন্যদেবের বৈষ্ণব দর্শনের অহিংস নীতির আদর্শে প্রতিষ্ঠিত। ইসকন শুধু মানুষের নয় সকল জীবের প্রতি সম্মান প্রদর্শনের শিক্ষা দেয়।

সমগ্র বাংলাদেশের মানুষ যখন আবরার হত্যাকান্ডে শোকাহত ঠিক সেই সময় দৈনিক নয়াদিগন্ত ও দৈনিক ইনকিলাব মানুষের মাঝে বিভ্রান্তি ছড়াতে ইসকনের নামে মিথ্যা ও বানোয়াট খবর প্রকাশ করে।

বাংলাদেশের মানুষের অসাম্প্রদায়িক চেতনাকে ধ্বংস করার উদ্দেশ্যে এ ধরনের খবর প্রকাশ করা হয়েছে বলে ইসকন মনে করে।

দেশে মিথ্যা ও গুজব ছড়িয়ে পরিস্থিতি অস্থিতিশীল করা দণ্ডনীয় অপরাধ। তাই সরকারের কাছে ইসকন বিনীতভাবে আবেদন করে, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যেন এর বিরুদ্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়।

নিচে দৈনিক নয়াদিগন্ত ও দৈনিক ইনকিলাবের প্রকাশিত সংবাদদের শিরোনামসহ লিংক দেয়া হলো।

১. আবরার হত্যার মূলচক্রী আমিত সাহা উগ্রবাদী ইসকনের সদস্য (নয়াদিগন্ত)

২. উগ্রবাদী ইসকনের সদস্য অমিত সাহা (ইনকিলাব)

ইসকনের প্রতিবাদ ঢাকানিউজের২৪ডটকমের হাতে আসার পর সংগঠনের প্রধান জনসংযোগ কর্মকর্তা সুখি সুশীল মহারাজের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। তাকে বেশ কয়েকটি প্রশ্ন করা হয়। তার উত্তর দেন তিনি। নিচে তা তুলে ধরা হলো।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম: নয়াদিগন্ত লিখেছে আপনারা অখণ্ড ভারতের এজেন্ডা নিয়ে বাংলাদেশে কাজ করছেন। এটা সত্য কিনা?

সুশীল মহারাজ: আমরা এ ধরনের কোনো বক্তব্য কোথাও দেইনি। আমরা সারা বিশ্বে হরিনাম প্রচার করি মাত্র।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম: ইসকন জাতীয় এই দুই দৈনিকের বিরুদ্ধে মামলা করবে কিনা?

সুশীল মহারাজ: আমরা এই দুই পত্রিকার বরাবর প্রতিবাদ পাঠিয়েছি। দেখি তারা আমাদের প্রতিবাদ ছাপে কিনা। তারপর সিদ্বান্ত নেব।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম: অখন্ড ভারতের স্বপ্ন দেখে বিজেপি আরএসএস। আপনারা তো বিজেপি আরএসএস নন। তাহলে আপনাদের নামে কেন এই প্রচার দৈনিক নয়াদিগন্ত করছে?

সুশীল মহারাজ: আমি রাজনৈতিক এসব বিষয় জানি না।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম: আপনাদের কি মনে হয় এসব বলে কোনো গোষ্ঠী আপনাদের ঘাড়ে বন্দুক রেখে কিছু করতে চাচ্ছে?

সুশীল মহারাজ: আমার তা মনে হয় না। তবে আমি কয়েকটি হিন্দু ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে গেলে তারা মামলা করতে নিষেধ করে। আবার কিছু কিছু ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান এ নিয়ে মামলা করতে বলেন।

ঢাকানিউজ২৪ডটকম