হোটেলে নিরামিষ খাবারের চাহিদা বাড়ছে

বিজয় চন্দ্র দাস, নেত্রকোনা প্রতিনিধি: নেত্রকোনা পৌরশহরে বটগাছতলা বড়বাজারে মাছ মাংসের জনপ্রিয়তার যুগে জমজমাট হয়ে উঠছে ইসকন পরিচালিত গোরিন্দাস রেস্টুরেন্ট। প্রাণিজ আমিষ, অতিরিক্ত তেল ও চর্বিযুক্ত খাবার, বাসি পঁচা, অপরিস্কার ও অপরিচ্ছন্নতা পরিহারই এর জনপ্রিয়তার কারণ অভিমত এলাকাবাসীর।

গোরিন্দাস রেস্টুরেন্টের পরিচালক জয়রাম দাস বলেন, গত ২০১৭ সালে রাধাষ্টমী তিথিতে এটি উদ্বোধন করেন আন্তর্জাতিক কৃষ্ণভাবনামৃত সংঘের সুভগ দ্বামী গুরুমহারাজ এটি উদ্বোধন করেন। সেই থেকে এর যাত্রা শুরু। আমরা মাছ মাংস ও চর্বিযুক্ত খাবার রান্না করি না। বাসি পঁচা খাবার কখনো পরিবেশন করি না। মিস্টি তৈরির ক্ষেত্রে আমরা কখনো ছানা আমদানি না করে দুধ থেকে হাতে তৈরি ছানা ব্যবহার করি। আমাদের রেস্টুরেন্টে প্রতিদিন প্রায় ৩০০ লোক আহার করে। ঈদ, দূর্গাপূজা সহ বিভিন্ন উৎসবে আমাদের বিক্রি বেড়ে যায়।

বাজারের বস্ত্র ব্যবসায়ী মুন্না সাহা বলেন, এ হোটেল পারিবারিক পরিবেশের মতো নিরিবিলি ও পরিচ্ছন্ন। ফলে বন্ধু বান্ধব ও অথিতিদের নিয়ে খাওয়া খুবই তৃপ্তিকর ও আনন্দের। দিন দিন এ হোটেলের খাবার ও মিস্টির চাহিদা বাড়ছে।

শিক্ষিক রাসেল আহমেদ বলেন, খাবার ও মিস্টি নিরামিষ হওয়ায় উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, হার্ট ডিজিজের রোগীরাও এখানে প্রতিদিন খাবার খেতে আসেন। ডিসি অফিস, উকিলবার, বড়পার্টি হলেও এ হোটেল থেকে খাবার সরবরাহ করা হয়।

সিভিল সার্জন তাজুল ইসলাম বলেন, সারা বিশ্বের দেশগুলোতে হোটেলে নিরামিষ খাবারের চাহিদা বাড়ছে। নিরামিষ খাবারে উচ্চ রক্তচাপ কমে, ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে আসে, হার্ট ডিজিজের রোগীর কোলেস্টেরল কমে।