শিগগির দেশে আরেকটি সংসদ নির্বাচন হবে : রেজা কিবরিয়া

নিউজ ডেস্ক:  শিগগির দেশে আরেকটি সংসদ নির্বাচন হবে বলে মন্তব্য করেছেন গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক ড. রেজা কিবরিয়া। আজ শুক্রবার হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার জালালসাপ গ্রামবাসীদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ মন্তব্য করেন।

রেজা কিবরিয়া বলেন, ‘সরকার বুঝতে পেরেছে যে, তারা দেশ পরিচালনায় সকল ক্ষেত্রে ব্যর্থ হয়েছে। জনগণ তাদের সহ্য করতে পারছে না। এখন চলে যাবার সময় এসেছে। তাই গদি ছাড়ার আগে চতুর্থ ও পঞ্চম সারির লুটেরাদের ধরে জনগণকে বোকা বানানোর চেষ্টা করছে। জনগণ তখনই খুশি হবে, যখন দেশের হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচারকারী ও ঋণ খেলাপিদের বিচারের আওতায় আনা হবে।’

গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘শিগগিরই দেশে আরেকটি সংসদ নির্বাচন হবে। তাই আসল অর্থ, সম্পদ লুটেরাদের গ্রেপ্তার না করে এদের চ্যাল্যাদের ধরে সরকার বাহবা নেওয়ার চেষ্টা করছে।’

রেজা কিবরিয়া আরও বলেন, ‘ঐক্যফ্রন্ট এই অবৈধ সরকারের বিরুদ্ধে দেশে-বিদেশে কথা বলছে। আওয়ামী লীগকে জনগণ পছন্দ করছে না। ইতোমধ্যে এরা ঘৃণিত দল হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। এরা জনগণের বদ দোয়া পাচ্ছে। হাজার হাজার কোটি টাকা আত্মসাত ও বিদেশে পাচারকারীদের না ধরে শত কোটি টাকা আত্মসাতকারীদের ধরে শুদ্ধ অভিযান দেখাচ্ছে। শুদ্ধ মানুষকে দিয়ে দেশ পরিচালনা করা দরকার এদেরকে (আওয়ামী লীগ) দিয়ে নয়। ’

সরকার পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিয়ে গণফোরামের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘দেশে নতুন হাওয়া বইতে শুরু করেছে। এতে দেশবাসীর মঙ্গল হবে। কীভাবে পরিবর্তন হবে আমি জানি না।’

আওয়ামী লীগ সরকারের সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়ার সন্তান ড. কিবরিয়া বলেন, ‘১৫ বছরেও বাবার হত্যার বিচার পায়নি আমাদের পরিবার। আমার মা আসমা কিবরিয়া ক্যান্সার আক্রান্ত হয়েও এই বিচার দেখে যেতে চেয়েছিলেন, কিন্তু পারেননি। জনগণ বুঝতে পারছে রাজনীতির একটি গুণগত মান দরকার। কেউ রাতের আধারে ভোট চুরি করে রাষ্ট্র পরিচালনা করুক-এমন গণতন্ত্র জনগণ চায় না।’

রেজা কিবরিয়া বলেন, ‘সরকারের বিরুদ্ধে কোনো কিছু বললে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে। সরকার যেখানে জনগণকে ভয় পাবার কথা সেখানে জনগণ সরকারকে ভয় পাচ্ছে।’

এর আগে রেজা কিবরিয়া পারিবারিক কবরস্থান জিয়ারত করেন। পরে তিনি হবিগঞ্জের বাহুবলের উদ্দেশে রওয়ানা হন।