ডাবল দিয়ে সেঞ্চুরির খাতা খুললেন মায়াঙ্ক

নিউজ ডেস্ক:  দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে তিন টেস্টের সিরিজের প্রথম ম্যাচের প্রথম ইনিংসে দুই ওপেনারের ব্যাটে ভর করে পাহাড়সম রান তুলে ফেলেছে ভারত। প্রোটিয়াদের আরও বড় রান চাপায় ফেলতে ব্যাট করছে স্বাগতিকরা। ক্যারিয়ারের ২৮তম টেস্টে ওপেন করতে নেমে দুর্দান্ত এক সেঞ্চুরি তুলে নেন রোহিত শর্মা। এরপর ডাবল সেঞ্চুরির দিকে ছুটতে থাকা রোহিত ১৭৬ রানের আউট হন। দুই রান করতে পারলেই ক্যারিয়ার সেরা টেস্ট ইনিংস খেলে ফেলতেন তিনি।

রোহিত না পারলেও তার ওপেনিং সঙ্গী মায়াঙ্ক আগারওয়াল ঠিকই পেরেছেন। ক্যারিয়ারের পঞ্চম টেস্টে এসে প্রথম সেঞ্চুরির দেখা পেলেন এই ওপেনার। প্রথম সেঞ্চুরিটাকেই ডাবল সেঞ্চুরিতে নিয়ে গেলেন ২৮ বছর বয়সী এই ডান হাতি ব্যাটসম্যান। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত তিনি ২২ চার ও ছয়টি ছক্কায় ২১০ রান তুলে ব্যাট করছেন।

ভারত রোহিতের পরে তার ব্যাটে ভর করে ৪ উইকেট হারিয়ে ৪৩৬ রান করে ব্যাট করছে। মায়াঙ্কের সঙ্গে ক্রিজে আছেন রবিন্দ্র জাদেজা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দারুণ ব্যাটিং করা আজিঙ্কা রাহানে ১৫ রানে আউট হয়েছেন। তিনে নামা চেতেশ্বর পূজারা (৬ রান) এবং তার পরে ব্যাট করতে নামা ভারতীয় অধিনায়ক বিরাট কোহলিও (২০ রান) ক্রিজে দাঁড়াতে পারেননি।

মায়াঙ্ক আগারওয়ালের এর আগে টেস্টে সর্বোচ্চ সংগ্রহ ছিল ৭৭ রান। সাত ইনিংস খেলে তিনটি ফিফটি করেন তিনি। এর মধ্যে ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৭৬ রানের ইনিংস খেলেন এই ব্যাটসম্যান। এর আগে রোহিতের সঙ্গে ওপেনিংয়ে ৩১৭ রানের জুটি গড়েন মায়াঙ্ক। ওপেনিংয়ে ভারতের যা তৃতীয় সর্বোচ্চ রানের জুটি। ১৯৫৬ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে বিনোদ মানকাড এবং পঙ্কজ রয় ৪১৩ রানের জুটি গড়েন। পাকিস্তানের বিপক্ষে লাহোরে ২০০৬ সালে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৪১০ রানের জুটি গড়েন বীরেন্দ্র শেবাগ ও রাহুল দাব্রিড়।