ঢাবিতে ভর্তি জালিয়াতি চক্রের দুই সদস্য আটক

নিউজ ডেস্ক:    ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) শহীদ মিনার এলাকা থেকে ভর্তি জালিয়াতি চক্রের দুই সদস্যকে আটক করা হয়েছে। আজ শনিবার সকালে তাদের আটক করা হয়।

প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, চক্রটি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের তিনটার সময় অনুষ্ঠিত ‘ইউনিট-১’ এর পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁস করতে চেয়েছিল।

বিষয়টি অধিকতর তদন্তের জন্য তাদেরকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে ঢাবির প্রক্টরিয়াল টিম। মূল হোতাকে ধরতে অভিযান চালানো হচ্ছে বলে জানিয়েছেন প্রক্টর অধ্যাপক একেএম গোলাম রব্বানী।

জানা যায়, আজ শনিবার সকালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনার এলাকা থেকে নূর-ই-সালমান নামের এক ব্যক্তিকে সন্দেহভাজন হিসেবে আটক করে প্রক্টরিয়াল বডির কাছে হস্তান্তর করেন ঢাবি শিক্ষার্থীরা। আটক নূর-ই-সালমান প্রক্টরিয়াল টিমের কাছে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে। এ সময় তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুটেক্স) পুলিশের সহায়তায় অভিযান চালায় ঢাবি প্রশাসন। এ সময় বুটেক্সের ওসমানী হল থেকে বেসরকারি আহ্ছানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে আটক করা হয়।

খোঁজ নিয়ে আরও জানা যায়, তাদের দুইজনকে শাহবাগ থানায় য়ে যাওয়া হয়। সেখানে আটক নূর-ই-সালমান জানান, তার দায়িত্ব হলো শিক্ষার্থী সংগ্রহ করে বুটেক্সের এক শিক্ষার্থীর কাছে নিয়ে যাওয়া। এরপর তারা ওই শিক্ষার্থীকে প্রশিক্ষণ দেয়। এ চক্রের মাস্টারমাইন্ড সিলেটের শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী বলে জানান সালমান। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ শেষে অধিকতর তদন্তের জন্য ডিবির কাছে হস্তান্তর করা হয়।

এ বিষয়ে ঢাবির প্রক্টর অধ্যাপক একেএম গোলাম রব্বানী বলেন, ‘এ পর্যন্ত দুইজনকে আটক করা হয়েছে। তাদের কাছে চক্রের বিষয়ে অনেক তথ্য পাওয়া গেছে। মূল হোতাকে ধরতে অভিযান চলবে। তদন্তের স্বার্থে তাদের পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়েছে।’