সঞ্চয়পত্রে সঠিক মুনাফা দিচ্ছে না ঢাকা সদর প্রধান ডাকঘর

সুমন দত্ত: ডাটাবেজ তৈরির কথা বলে সঞ্চয়পত্রের গ্রাহকদের মুনাফার টাকা দিচ্ছে না বাংলা বাজারের ঢাকা সদর প্রধান ডাকঘর। ৫ লাখ টাকার উপরে ১০% হারে রাজস্ব কাটার প্রজ্ঞাপন জারি করার পরও কম টাকার সঞ্চয়পত্রের গ্রাহকদের কাছ থেকে জোর করে ১০% হারে রাজস্ব কেটে নেয়া হচ্ছে। সেখানে ক্যাশে কর্মরত পোস্ট অফিসের কর্মচারীরা যে যার খুশিমতো লোকজনের কাছ থেকে রাজস্ব কেটে নিচ্ছেন। অনেক কে মুনাফার টাকা না দিয়ে ফিরিয়ে দেয়া হচ্ছে।

সঞ্চয়পত্রের গ্রাহকদের কার কত টাকা আছে, এই সম্পর্কে সঠিক তথ্য নেই সদর প্রধান ডাকঘরে। এ কারণে ৫ লাখ টাকার সঞ্চয়পত্রের গ্রাহকদের কাছ থেকে ১০% হারে রাজস্ব কেটে মুনাফার টাকা দেয়া হচ্ছে। ৫ লাখ টাকার সঞ্চয়পত্রের গ্রাহকরা আগের নিয়মে টাকা চাইলে তাদেরকে ফিরিয়ে দেয়া হচ্ছে। বলা হচ্ছে, পোস্ট অফিস কর্তৃপক্ষ সঞ্চয়পত্রের গ্রাহকদের সম্পর্কে ডাটাবেজ তৈরি করবে। ডাটাবেজ তৈরি শেষে তাদের টাকা দেয়া হবে।

প্রসঙ্গত, ৫% হারে রাজস্ব কাটলে লাখে প্রতিমাসে ৯১২ টাকা পান গ্রাহকরা। আর ১০% হারে রাজস্ব কাটলে লাখে ৮৬৪ টাকা মুনাফা দেয়া হয়।

এদিকে পোস্ট অফিসের এক শ্রেণির কর্মচারীরা ভিতর দিয়ে বখশিশের বিনিময়ে ৫% হারে আগের নিয়মে রাজস্ব কেটে বিভিন্ন গ্রাহককে মুনাফা পাইয়ে দিচ্ছেন।

এ রকম অনিয়ম দেখে বহু গ্রাহক পোস্ট অফিসের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। সরকারের সমালোচনা করতেও দেখা যায় অনেককে।